ঘোষনা:
নীলফামারীতে চাড়ালকাটা নদী খননের বালু পড়ে,ফসল নস্ট , ক্ষতিপূরণের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন।

নীলফামারীতে চাড়ালকাটা নদী খননের বালু পড়ে,ফসল নস্ট , ক্ষতিপূরণের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন।

মোঃ হারুন উর রশিদ, স্টাফ রিপোর্টার,
নীলফামারী চাড়ালকাটা নদী খননের বালু পড়ে,ফসল নস্ট ও ফসলী জমির ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। আজ রবিবার সকালে নীলফামারী চাপড়া ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড বেড়াডাঙ্গা বর্মতলা এলাকায় এ মানববন্ধন হয়।
এসময় বক্তব্য রাখেন এলাকাবাসী মোঃ রব্বানী,আজিজুল ইসলাম,শ্রী অনিল চন্দ্র রায়সহ আরও অনেকে।


বক্তব্যে রব্বানী বলেন, আমরা গরিব মানুষ। আমাদের যতটুকু জমি আছে সেই জমিতে চাষাবাদ করে কোনরকমে সংসার চালাই। আমাদের এলাকার পাশ দিয়ে বয়ে গেছে এই চারালকাটা নদী। পানি উন্নয়ন বোর্ডের পরিচালনায় বিভিন্ন ঠিকাদারের মাধ্যমে সরকার এই নদী খননের কাজ করছে।কিন্তু নদী খননের বালু আমাদের আবাদী জমিতে ফেলছে। তাতে আমাদের ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। আমাদের এলাকায় এবার কোন কৃষক ঘরে ফসল তুলতে পারবে না। নদীর পাশদিয়ে যেসব জমি সবগুলোতে আমরা ভুট্টা চাষ করেছিলাম সব এখন বালুর তলায় পরে আছে। যেখানে ২ কেজি ভুট্টার বীজের প্যাকেট কিনতে হয় ১৪ শত টাকা। এরপর জমি চাষ,সমিতে সার প্রয়োগ তো আছেই।
তিনি আরও বলেন, চারালখাটা নদী খননের বালু আমাদের জমিতে পড়ায় আমাদের ফসলের যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং এসব বালু আমাদের জমিতে কতদিন এভাবে থাকবে আমরা তাও জানিনা। তাই আমরা আমাদের ক্ষতিপূরণে সরকারের কাছে জোরদাবী জানাই।
এলাকাবাসী অনিল চন্দ্র রায় বলেন,আমি গরিব মানুষ। আমি মোটে তিন বিঘার মতো জমি চাষাবাদ করি। আমার নিজস্ব জমি বলতে মাত্র এক বিঘা আছে। বাকি জমি বন্ধক নিয়েছি।এই তিন বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষে আমার খরচ হয় ২৪ হাজার টাকা। আমার সব জমির ফসল নষ্ট হয়ে গেছে চাড়ালকাটা নদীর বালু পড়ে। আমি কি করে সংসার চালাবো? আমার পরিবার খাবে কি? এলাকাবাসী আমরা সবাই আমাদের ক্ষতিপূরণে সরকারের কাছে জোরদাবী জানাই।
মানববন্ধন শেষে এলাকাবাসী নীলফামারী জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্বারকলীপি প্রদান করে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST