ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে গৃহহীনদের মাঝে জমিসহ ঘরের চাবি হস্তান্তর ডোমারে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণে অনিয়মের তদন্ত নীলফামারীতে গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল সহ ঘরের চাবি হস্তান্তর। নীলফামারীতে আশ্রয়হীন ১২৫০ পরিবারের স্বপ্ন এখন সত্যি কিশোরগঞ্জ মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের রড চুরি- ধ্রুত চোরকে ছেড়ে দিল কর্তৃপক্ষ নীলফামারীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু রাত পোহালেই ডিমলায় নতুন ঘরে উঠবেন ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার ওয়ালটনের মিলিয়নিয়ার অফারে ফ্রিজ কিনে ১০ লক্ষ টাকা পেলেন জলঢাকার মতি টাঙ্গাইলে নতুন ৯২ জন করোনা শনাক্ত বাংলাদেশ সরকারের প্রথম অর্থ সচিবের স্ত্রী কুলসুম জামান আর নেই
পাটকল শ্রমিকদের ২ মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধে ৮০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা বরাদ্দ।

পাটকল শ্রমিকদের ২ মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধে ৮০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা বরাদ্দ।

ঢাকা প্রতিনিধি,
বন্ধ ঘোষিত সরকারি পাটকগুলোর শ্রমিকদের জুন মাসের এক সপ্তাহের বকেয়া মজুরি ও ৬০ দিনের নোটিশ মেয়াদের মজুরি এবং অপরিশোধিত নববর্ষ ভাতা পরিশোধের জন্য ৮০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। অর্থ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দ দেয়া এ অর্থ শ্রমিকদের নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে চেকের মাধ্যমে দেয়া হবে।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, শ্রমিকদের জুন মাসের এক সপ্তাহের বকেয়া মজুরি বাবদ ১০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ও ৬০ দিনের নোটিশ মেয়াদের মজুরি বাবদ বাকি টাকা পরিশোধ করতে হবে। তবে ৬০ দিনের নোটিশ মেয়াদের মজুরি বাবদ বরাদ্দ করা টাকা শ্রমিকদের প্রাপ্যতার ভিত্তিতে বরাদ্দ করতে হবে। উদ্বৃত্ত অর্থ (যদি থাকে) বন্ধ ঘোষিত মিলগুলোর শ্রমিকদের গ্র্যাচুইটি/পিএফের সঙ্গে সমন্বয়যোগ্য হবে।

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী গত ৩ জুলাই এক সাংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, ‘মজুরি কমিশন-২০১৫’ অনুযায়ী পাটকল শ্রমিকদের জুন মাসের মজুরি ও নোটিশ মেয়াদের অর্থাৎ জুলাই-আগস্টের ৬০ দিনের মজুরিও জুলাই মাসে যথারীতি পরিশোধ করা হবে। পিএফ, গ্র্যাচুইটি ও গোল্ডেন হ্যান্ডশেক সুবিধাসহ অবশিষ্ট সব পাওনার ৫০ শতাংশ শ্রমিকদের নিজ নিজ ব্যাংক হিসাবে এবং বাকি ৫০ শতাংশ সঞ্চয়পত্র আকারে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে পরিশোধ করা হবে।

সব ক্ষেত্রেই মজুরি কমিশনের ভিত্তিতেই পাওনা হিসাব করা হবে। ২০১৪ সাল হতে অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের (৮ হাজার ৯৫৪ জন) প্রাপ্য সব বকেয়া, বর্তমানে কর্মরত শ্রমিকদের (২৪ হাজার ৮৮৬ জন) প্রাপ্য বকেয়া মজুরি, শ্রমিকদের পিএফ জমা, গ্র্যাচুইটি এবং সেই সাথে গ্র্যাচুইটির সর্বোচ্চ ২৭ শতাংশ হারে অবসায়ন সুবিধা একসঙ্গে পুরোটা পরিশোধ করা হবে। এজন্য সরকারি বাজেট হতে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা প্রদান করা হবে। অবসায়নের পর মিলগুলো সরকারি নিয়ন্ত্রণে পিপিপি/যৌথ উদ্যোগ/জিটুজি/ লিজ মডেলে পরিচালনার উদ্যোগ নেয়া হবে। নতুন মডেলে পুনরায় চালু করা মিলে বর্তমান শ্রমিকেরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজের সুযোগ পাবেন বলেও জানিয়েছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST