ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে গৃহহীনদের মাঝে জমিসহ ঘরের চাবি হস্তান্তর ডোমারে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণে অনিয়মের তদন্ত নীলফামারীতে গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল সহ ঘরের চাবি হস্তান্তর। নীলফামারীতে আশ্রয়হীন ১২৫০ পরিবারের স্বপ্ন এখন সত্যি কিশোরগঞ্জ মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের রড চুরি- ধ্রুত চোরকে ছেড়ে দিল কর্তৃপক্ষ নীলফামারীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু রাত পোহালেই ডিমলায় নতুন ঘরে উঠবেন ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার ওয়ালটনের মিলিয়নিয়ার অফারে ফ্রিজ কিনে ১০ লক্ষ টাকা পেলেন জলঢাকার মতি টাঙ্গাইলে নতুন ৯২ জন করোনা শনাক্ত বাংলাদেশ সরকারের প্রথম অর্থ সচিবের স্ত্রী কুলসুম জামান আর নেই
নীলফামারীর ডোমারে করোনায় মৃত কলেজ শিক্ষকের লাশ দাফন করলো পুলিশ 

নীলফামারীর ডোমারে করোনায় মৃত কলেজ শিক্ষকের লাশ দাফন করলো পুলিশ 

রতন কুমার রায়,স্টাফ রিপোর্টার,
নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত কলেজ শিক্ষক গোলাম মাওলা সাদিক ওরফে সাবুর (৫২) লাশ পরিবারের কয়েক সদস্য নিয়ে দাফন করলো ডোমার থানা পুলিশের সদস্যরা। বুধবার রাতে উপজেলার চিলাহাটি বাজারে তার গ্রামের বাড়ীতে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। একই দিন সকাল সাতটার দিকে রংপুর করোনা বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যু বরণ করেন। তিনি নীলফামারী মশিউর রহমান ডিগ্রি কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ছিলেন ।
স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গোলাম মাওলা সাদিক গত ৪ আগষ্ট শ্বাসকষ্ট নিয়ে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। ৫ আগষ্ট করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসলে তাকে রংপুর করোনা বিশেষায়িত হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বুধবার সকাল সাতটার দিকে সেখানে তিনি মৃত্যু বরণ করেন। দুপুরে এ্যাম্বুলেন্সে করে তার লাশ গ্রামের বাড়ী চিলাহাটিতে নিয়ে আসা হয়।
করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির লাশ গ্রামের বাড়ীতে নিয়ে আসার পর ওই এলাকায় কিছুটা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। দ্রæত ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান ও স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন এলাকাবাসীকে সচেতনতামূলক বিভিন্ন পরামর্শ দেয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম, ডোমার থানা ওসি মোস্তাফিজার রহমান জানাজা ও দাফনের ব্যবস্থা করেন। পরিবারে কয়েকজন সদস্য জানাজা ও দাফন কাজে অংশ নেয়।
ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান জানান, করোনা আক্রান্ত মৃত কলেজ শিক্ষক সাবুর লাশ বাড়ীতে নিয়ে আসার পর কিছুটা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কগ্রস্থ এলাকাবাসীকে আমি বলি, এখানে আতঙ্কের কিছু নাই। যে ব্যক্তি করোনায় মারা গেছে তিনি শিক্ষার প্রসারে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছে। আমরা পুলিশ সদস্যরা তার দাফন ও জানাজা সম্পন্ন করবো। আপনারা কেউ আতঙ্কিত হবেন না। এসময় মৃত ব্যক্তির পরিবারের কয়েকজন লোক এ কাজে অংশ নেয়।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST