ঘোষনা:
শিরোনাম :
শিক্ষক হত্যা ও কলেজ অধ্যক্ষকে নির্যাতনের প্রতিবাদে নীলফামারীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান। আওয়ামীলীগ হিন্দুদের দল, ভারতের চর এসব ট্যাবলেটে এখন আর কাজ হয়না,তথ্যমন্ত্রী হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় ৬ বছর পূর্তিতে,কূটনীতিকরা নিহতদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা বিকেএসপিতে ব্লু খেতাব অর্জন,দেশসেরা নারী আরচার নীলফামারীর দিয়া সিদ্দিকী জাতি হিসেবে আমাদের সক্ষমতাকে সবসময় অবমূল্যায়ন করে সমালোচকরা বললেন,প্রধানমন্ত্রী খাগড়াছড়িতে ৭ম টিআরসি ব্যাচের প্রশিক্ষণ সমাপনী নীলফামারীর ডিমলায় মাদকদ্রব্যের রোধকল্পে কর্মশালা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে রায়পুরায় কাভার্ডভ্যান চাপায় নিহত,৩ আহত ৫ চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৭০ জন  জলঢাকা পৌরসভার ৭৯ কোটি ৭৯ লক্ষ ১ হাজার ৭ শত ৩০টাকার বাজেট ঘোষনা
কিশোরগঞ্জে তাঁতী লীগের উদ্যোগে২১ আগস্ট গেনেট হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন।

কিশোরগঞ্জে তাঁতী লীগের উদ্যোগে২১ আগস্ট গেনেট হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন।

মোঃমিজানুর রহমান কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি, আজ    বাংলাদেশের ইতিহাসে ২১ আগস্ট একটি নৃশংসতম হত্যাযজ্ঞের ভয়াল দিন। একটি নারকীয় সন্ত্রাসী হামলার প্রায় দেড় দশক আগে ২০০৪ সালে এই দিনে  বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামীলীগের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে  সন্ত্রাসবিরোধী নারকীয় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়।  আজকের এই শোকবিহ্বল দিনটিকে বাঙালি জাতির ইতিহাসে নজিরবিহীন হত্যাযজ্ঞ দিন আখ্যায়িত করে, শ্রদ্ধাবনত চিত্রে নিহতদের স্মরণ করতে নীলফামারী জেলা তাঁতী লীগের সভাপতি সেলিম দেওয়ান আহমেদের নির্দেশক্রমে, কিশোরগঞ্জ উপজেলা তাঁতী লীগের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত।  আজ শুক্রবার সকাল ১১ টায় কিশোরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে  এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা তাঁতীলীগের সংগ্রামী সভাপতি শেখসাদী রহমানের সভাপতিত্বে ও দলটির সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম লিটনের  সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সহ সভাপতি শোভন ভট্টাচার্য, সহ-সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন, শরিফ হোসেন   আজিম হোসেন, সুজন চন্দ্র, বাবু হোসেন, হাসানুর, আজিজুল, মশিউর রহমান প্রমুখ। এ সময় তাঁতী লীগের সভাপতি শেখ সাদী বলেন, এ হত্যাকাণ্ড মূলত আওয়ামী লীগ কে নেতৃত্বশূন্য করতে তৎকালীন সময়ে  বিএনপি-জামাত তথা চারদলীয় জোট সরকারের নাটকীয় সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে  শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক সমাবেশে চালানো হয় নজিরবিহীন হত্যাযজ্ঞ। মুহূর্তে পিচ ঢালা পথ লাল রক্তে রঞ্জিত হয়ে পরিণত হয় মৃত্যুপুরীতে। এসময় অলৌকিকভাবে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান তৎকালীন সময়ের  আওয়ামী লীগের বিরোধী দলীয়নেত্রী জন নেত্রী শেখ হাসিনা।  ঘটনাস্থলে ১৬ জন নিহত হন, এবং আহত হয় প্রায় সাড়ে ৫শত নেতাকর্মী।তাঁতী লীগের সাধারণ সম্পাদক, নুরুল ইসলাম লিটন  তৎকালীন সময়ে বিএনপি-জামাত নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট সরকারের সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দুর্নীতিবিরোধী কার্যকলাপ কে ধিক্কার জানিয়ে বলেন, মূলত মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে নিশ্চিহ্ন করার অপপ্রয়াস মাত্র । এ স্বপ্ন কোনদিনও পূরণ হবার নয়। পরিশেষে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন শেষে তাদের  রুহের মাগফেরাত কামনা করেন।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST