ঘোষনা:
শিরোনাম :
পদ্মা সেতু হওয়ায় বিএনপি উদভ্রান্তের মত কথা বলছে,চট্টগ্রামে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বানভাসি মানুষের পাসে লিয়ন চৌধুরী নীলফামারীতে মধ্য রাতে মাতলামি; প্রতিবাদ করায় গুরুতর রগকাটা জখম, থানায় এজাহার। নীলফামারীতে এক মাস ব্যাপি পুনাক তাঁত শিল্প ও পণ্য মেলার শুভ উদ্বোধন পাহাড়ে সন্ত্রাস দমনে এপিবিএন’র টহল শুরু শিক্ষক হত্যা ও কলেজ অধ্যক্ষকে নির্যাতনের প্রতিবাদে নীলফামারীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান। আওয়ামীলীগ হিন্দুদের দল, ভারতের চর এসব ট্যাবলেটে এখন আর কাজ হয়না,তথ্যমন্ত্রী হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় ৬ বছর পূর্তিতে,কূটনীতিকরা নিহতদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা বিকেএসপিতে ব্লু খেতাব অর্জন,দেশসেরা নারী আরচার নীলফামারীর দিয়া সিদ্দিকী জাতি হিসেবে আমাদের সক্ষমতাকে সবসময় অবমূল্যায়ন করে সমালোচকরা বললেন,প্রধানমন্ত্রী
নীলফামারী কিশোরগঞ্জ থানায় শামুক খোলপাখির অভয়াশ্রম।

নীলফামারী কিশোরগঞ্জ থানায় শামুক খোলপাখির অভয়াশ্রম।

মোঃ মিজানুর রহমান কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি, মডেল থানার হাতছানি, অপরাপর সবুজ বৃক্ষরাজির অপূর্ব সমাহার জীববৈচিত্রের এক অপরুপ
সৌন্দর্য্য যেন বহুগুন বাড়িয়ে দিতে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ থানা ক্যাম্পাস যেন নবরুপে সেজেছে শামুক খোল পাখির অভয়ারণ্যে। মানুষ শুধু নিরাপদ আশ্রয় খোঁজে তা নয়, জ্ঞান সম্পন্ন শামুক খোল পাখি নিরাপদ আশ্রয় খোঁজে।
ঠাঁই গেঁড়েছেন কিশোরগঞ্জ থানা ক্যাম্পাসের চার পাশসহ বাজারের বেশ কয়েকটি গাছে। ঝড়-ঝঞ্ঝা কে উপেক্ষা করে নিরাপদ প্রজননের মাধ্যমে দিন দিন বাড়ছে পাখির সংখ্যা। মা পাখিরা ব্যস্ত বাচ্চাদের সামলাতে। আবার বাবা পাখিরা
বিভিন্ন জলাশয় থেকে দিনভর খাবার সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পার করছে। আর অন্য পাখিদের সময় কাটছে নিজেদের মধ্যেও খুনসুটি করে। চোখের সামনে ঝাঁকে
ঝাঁকে উড়ছে শামুকখোল পাখি। পাখিদের ডাকে শান্তি আসে মানুষের মনে। পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঁকি দিলে পাখিদের উড়া-উড়ি, কলকাকলি আর পাখার
ঝাপটানিতে ঘুম ভাঙছে মানুষের। যান্ত্রিক নগরায়ন আর ব্যস্ততম শহরে হাজারো মানুষের পদচারণা, পাখপাখালির কল কাকলি, প্রকৃতির অপরূপ লীলা নিকেতনে,
আকাশে সাদা মেঘের ভেলা, সবুজের নৈসর্গিক মনোরম দৃশ্য এক মোহনীয় পরিবেশের সৃষ্টি করে জীবনানন্দ কবিতার মতোই যেন থানা ক্যাম্পাস পাখি রাজ্য।
দৃষ্টিনন্দন চিত্রাকর্ষক এমন দৃশ্য পাখি প্রেমী তাড়িত মনকে ক্ষণিকের জন্য হলেও সুরের মুর্ছনায় আবেগময় করে তুলছে। আবার সাঁঝের বেলায় ঝাঁকে ঝাঁকে পাখি উড়ার দৃশ্য প্রকৃতি সেজে ওঠে ভিন্ন সাজে। গত কয়েক বছর ধরে স্থানীয়দের ভালোবাসা ও থানা-পুলিশের সখ্যতায় প্রজনন মৌসুমে পাখিগুলো আসে আর বাচ্চা বড় হলে দলবেঁধে উড়তে যায়। এবারও বেশিভাগ পাখি বাচ্চা দিয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে থানা চত্বরে সুবিশাল শিমুল, আম, তেতুল সহ
বাজারে বেশ কয়েকটি কড়াই গাছের সবুজ শাখার আঁকা বাঁকা ডালে ধূসররঙের কয়েক হাজার শামুক খোল পাখি বাসা বেঁধেছে। পাখির কলকাকলি, খুনসুটি
উড়াও এ যেন পাখির রাজ্য। এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আউয়াল জানান, বন-জঙ্গল উজাড় হওয়ার কারণ এ প্রজাতির পাখি বিলুপ্ত প্রায়। তিস্তা সেচ ক্যানেল সহ উপজেলায় বেশকিছু বিল থাকায় পাখিগুলো এখানে নিরাপদ আশ্রয়ের
জন্য ঠাঁই নিয়েছে। পাখি শিকার কঠোর ভাবে দমন করা হয়েছে, শিকারি যাতে পাখিগুলো শিকার করতে না পারে এ জন্য থানা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST