ঘোষনা:
শিরোনাম :
আওয়ামীলীগ হিন্দুদের দল, ভারতের চর এসব ট্যাবলেটে এখন আর কাজ হয়না,তথ্যমন্ত্রী হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় ৬ বছর পূর্তিতে,কূটনীতিকরা নিহতদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা বিকেএসপিতে ব্লু খেতাব অর্জন,দেশসেরা নারী আরচার নীলফামারীর দিয়া সিদ্দিকী জাতি হিসেবে আমাদের সক্ষমতাকে সবসময় অবমূল্যায়ন করে সমালোচকরা বললেন,প্রধানমন্ত্রী খাগড়াছড়িতে ৭ম টিআরসি ব্যাচের প্রশিক্ষণ সমাপনী নীলফামারীর ডিমলায় মাদকদ্রব্যের রোধকল্পে কর্মশালা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে রায়পুরায় কাভার্ডভ্যান চাপায় নিহত,৩ আহত ৫ চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৭০ জন  জলঢাকা পৌরসভার ৭৯ কোটি ৭৯ লক্ষ ১ হাজার ৭ শত ৩০টাকার বাজেট ঘোষনা কিশোরগঞ্জে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ণে কর্মশালা
অনিয়ম তদন্তে জলঢাকা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে তদন্ত দল

অনিয়ম তদন্তে জলঢাকা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে তদন্ত দল

ফাইল ছবি।

স্টাফ রিপোর্টার,
নীলফামারীর জলঢাকায় দলিল লেখক সমিতির বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে গঠিত তদন্ত কমিটি তদন্ত কাজ সমাপ্ত করেছে। বুধবার সকাল থেকে বিকাল পযর্ন্ত সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে চলে এই তদন্ত। তদন্ত দলের নের্তৃত্ব দেন ডিমলা উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার রামজীবন কুন্ড। তদন্ত দলের অন্য সদস্যরা হলেন কিশোরগঞ্জ উপজেলার সাব-রেজিস্ট্রার আব্দুল্লা-আল-মাসুম ও সৈয়দপুর সাব-রেজিস্ট্রার মিজানুর রহমান। এ সময় জলঢাকা সাব রেজিস্ট্রার মনীষা রায় অফিসে উপস্থিত ছিলেন। তদন্ত চলাকালে পৃথকভাবে উভয় পক্ষের সাথে কথা শুনেন তারা। জানা যায়, সম্প্রতি জলঢাকার দলিল লেখক সমিতির সভাপতি আহম্মেদ হোসেন ভেন্ডার ও সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেনের বিরুদ্ধে দলিলের পিছনের বিশেষ সিলমোহর ব্যবহার করে সমিতির নামে দলিল প্রতি জোড় পূবর্ক দুই হাজার টাকা আদায় করার অভিযোগ উঠে। এ ছাড়াও দলিল লেখক সমিতির সভাপতি আহম্মেদ হোসেন সরকার দলের নাম ভাংগিয়ে জলঢাকা সাব-রেজিস্ট্রার অফিস জীম্মি করে রাখার অভিযোগ উঠে। আর এসব অভিযোগ করেন দলিল লেখক আনিছুর রহমান ও মোস্তাফিজার রহমানসহ কয়েকজন ভুক্তভোগি। এই চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে সাব-রেজিস্ট্রারের উপস্থিতিতে দলিল লেখকদের মাঝে দলিল ছেড়াঁসহ হাতা-হাতির ঘটনাও ঘটে। এনিয়ে উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ করেন। পরবর্তিতে হাতা-হাতির ঘটনার সুষ্টু বিচার ও চাঁদাবাজী বন্ধের দাবীতে দলিল লেখক আনিছুর রহমান অফিস চত্ত্বরে প্রতিবাদ সভা করেন এবং বিভিন্ন দপ্তরে বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। যা ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্টোনিক্স মিডিয়া ফলাও করে প্রচার করে। এর পরিপেক্ষিতে তদন্ত কমিটি গঠন করেন জেলা রেজিস্ট্রার মোঃ সাখওয়াত হোসেন। তদন্ত শেষে তদন্ত দলের প্রধান ও ডিমলা সাব-রেজিস্ট্রার রামজীবন কুন্ড বলেন,‘আমরা উভয় পক্ষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সম্পন্ন করেছি,তদন্ত শেষে দ্রুত সময়ের মধ্যে জেলা রেজিস্ট্রারের কাছে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।’





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST