ঘোষনা:
শিরোনাম :
দিনাজপুরে ‍‍‍‍‍” মানুষ মানুষের জন্য ” সংগঠনের উদ্দ্যোগে মাস্ক বিতরণ চাঁদপুরে করোনায় আক্রান্ত ২জনের চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু : আক্রান্ত আরো ২৫জন। দেশে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ খেলা-ধুলা । সাতক্ষীরায় এক শিশুকে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষনের অভিযোগে,ধর্ষক সিরাজুল গ্রেপ্তার । খুলনা করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু। চট্টগ্রামে করোনায় আরও ৩ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৩৮০ । নারায়ণগঞ্জে লঞ্চ ডুবির ঘটনায় ১৪ স্টাফ সহ এসকেএল -৩ জাহাজটি আটক। ভবানীগঞ্জে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে সচেতন করেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, এ.এস. এম. মুক্তারু জ্জামান। জলঢাকা থানা নীলফামারী কৃষকদের মাঝে আউশ ধানের বীজ ও সার বিনামূল্যে বিতরণ। বঙ্গবন্ধু ৯ম গেমসে ৯ স্বর্ণ,৭রৌপ্য,১তাম্র অর্জনে চ্যাম্পিয়ন আনসার,ভিডিপি।রানার্সআপ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।
নীলফামারীর ডোমারে একটি ব্রীজের জন্য জনদূর্ভোগে এলাকাবাসী

নীলফামারীর ডোমারে একটি ব্রীজের জন্য জনদূর্ভোগে এলাকাবাসী

স্টাফ রিপোর্টার,
নীলফামারী ডোমারে একটি ব্রীজের জন্য জনদূর্ভোগে পড়েছে উপজেলার মটুকপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের এলাকাবাসী। শনিবার ডোমার থেকে জলঢাকা আসার পথে একবট নামক স্থানে জনগণের অভিযোগে সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, ওই ওয়ার্ডের পূর্ব নদীয়া পাড়া ও হঠাৎ পাড়ার যাতায়াত রাস্তাটি দীর্ঘদিন থেকে বাঁশের ব্রীজ দিয়ে চলাফেরা করছে নদীর দুই পারের হাজারও জনতা। দীর্ঘ দিন থেকে এ ব্রীজটি না থাকায় বিপাকে পড়ছে এলাকাবাসী। ভাড়ি যানবাহন থেকে শুরু করে পারিবারিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানের সময় রিক্সা/ভ্যান কিংবা মাইক্রো দাঁড় করে রাখতে হয় পূূর্ব নদীয়া পাড়ায়। দুই পাড়ার মাঝখানে দীর্ঘদীন থেকে এ ব্রীজটি না থাকায় অনেক কষ্টে আছে এলাকাবাসী। যা না দেখলে বোঝা যাবেনা। অনেকে জানান সরকারের বিভিন্ন জায়াগায় উন্নয়নের কথা শুনি আমরা সরকারের প্রশাংসা করি বিভিন্ন জায়গায় উন্নয়ন দেখে। কিন্তু পূর্ব নদীয়াপাড়া ও হঠাৎপাড়া নদীর মাঝামাঝি রাস্তায় বাঁশের ব্রীজ দিয়ে আমাদের কষ্টে চলাফেরা করতে হয়। শুধু এলাকাবাসি নয় স্কুল, কলেজের ছাত্রছাত্রীরাও বিপাকে পরেছে। যখন বর্ষাকাল আসে নদীর পানি স্রোতে ভেসে যায় আমাদের বাঁশের ব্রীজটি, তখন যাতায়ত বন্ধ হয়ে যায়। স্কুল কলেজের ছাত্র/ছাত্রীদের পাঠদান। শুধু তাই নয়, এ ব্রীজটি না থাকায় বিপাকে পড়েছেন দুই পাড়ের নামাজী মুসল্লিরাও। এ বিষয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা হলে তারা বলেন এবং ওই এলাকার -৮নং ওয়ার্ডের ইউ,পি সদস্য ওয়াহেদুল ইসলালের সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমি ডোমার উপজেলা অফিস থেকে শুরু করে জেলা অফিস পর্যন্ত এই ব্রীজটি হওয়ার জন্য অবগত করেছি কিন্তু ব্রীজটি হচ্ছে না কেন আমি বলতে পারছি না। যদি ব্রীজটি হয় এ সুবিধা ভোগ করবে এলাকাবাসি। যদি ব্রীজটি হয় তাহলে আমি নিজেকে ধন্য মনে করবো। সরকারের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে এ ব্রীজটি হওয়ার জন্য আকুল আবেদন জানান নদীয়াপাড়া ও হঠাৎ পাড়ার এলাকাবাসী।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST