ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে গৃহহীনদের মাঝে জমিসহ ঘরের চাবি হস্তান্তর ডোমারে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণে অনিয়মের তদন্ত নীলফামারীতে গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল সহ ঘরের চাবি হস্তান্তর। নীলফামারীতে আশ্রয়হীন ১২৫০ পরিবারের স্বপ্ন এখন সত্যি কিশোরগঞ্জ মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের রড চুরি- ধ্রুত চোরকে ছেড়ে দিল কর্তৃপক্ষ নীলফামারীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু রাত পোহালেই ডিমলায় নতুন ঘরে উঠবেন ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার ওয়ালটনের মিলিয়নিয়ার অফারে ফ্রিজ কিনে ১০ লক্ষ টাকা পেলেন জলঢাকার মতি টাঙ্গাইলে নতুন ৯২ জন করোনা শনাক্ত বাংলাদেশ সরকারের প্রথম অর্থ সচিবের স্ত্রী কুলসুম জামান আর নেই
শুভেচ্ছা দূত হিসেবে মাশরাফির চুক্তি এবং বিচ্ছেদ

শুভেচ্ছা দূত হিসেবে মাশরাফির চুক্তি এবং বিচ্ছেদ

স্পোর্টস ডেস্ক,
বলতে গেলে ক্রিকেট থেকে এখন অনেকটাই দূরে মাশরাফি বিন মর্তুজা। জাতীয় দলের হয়ে সম্ভবত আর মাঠেই নামা হচ্ছে না তার। যদিও ওয়ানডে ক্রিকেটকে এখনও আনুষ্ঠানিক বিদায় জানাননি। ঘরোয়া ক্রিকেটেও প্রায় অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন। চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলার কথা রয়েছে শেখ জামালের হয়ে। তবে কবে মাঠে নামতে পারবেন সেটাও নিশ্চিত নয়।

তবুও ব্র্যান্ডভ্যালু হিসেবে মাশরাফির অনেক কাটতি এখনও বাজারে। পুরোদস্তুর রাজনীতিবিদ হয়ে গেলেও বিজ্ঞাপনের বাজারে মাশরাফির এখনও অনেক চাহিদা। সে কারণে নানা পণ্যের বিজ্ঞাপনেও তাকে দেখা যায় বেশ। হচ্ছেন নানা প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছা দূতও।

সম্প্রতি এমন একটি কোম্পানির শুভেচ্ছা দূত হয়েছেন দেশের সর্বকালের সেরা ওয়ানডে অধিনায়ক। কিন্তু যে প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছা দূত হয়েছেন তিনি, পরে মাশরাফি জানতে পারেন সেই প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম ভিন্ন। তাকে প্রথমে যা বলা হয়েছিল, তেমন কার্যক্রম সেই প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করে না।

যার ফলে, মাশরাফি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শুভেচ্ছা দূত হিসেবে সেই প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করবেন। এ বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়াও শুরু করে দিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে তিনি ফেসবুকে পোস্ট করা একটি বার্তার মাধ্যমে সবাইকে সেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে সতর্ক থাকারও আহ্বান জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার রাতে নিজের অফিসিয়াল ফেসবুকে পোস্ট করা একটি বার্তায় মাশরাফি লেখেন, ‘গত এপ্রিলে আমি ‘SPC GROUP’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছিলাম।

তাদের সঙ্গে আমার চুক্তি ছিল, ‘শুভেচ্ছা দূত’ হিসেবে তারা তাদের প্রতিষ্ঠানের প্রচারে আমার ছবি ও ধারণকৃত ভিডিও ব্যবহার করতে পারবে।

বিনিময়ে তারা নড়াইলে ১০০টি উন্নতমানের সিসিটিভি স্থাপনসহ সামাজিক উন্নয়নের কাজ করবে। কিন্তু সম্প্রতি আমি জানতে পেরেছি, তাদের প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে যে ধারণা আমাকে দেয়া হয়েছিল, তাদের ব্যবসার ধরন তা নয়।

দুই বছরের চুক্তি থাকলেও দুই মাসের মধ্যেই তাদের সম্পর্কে জানার পরই আমি তাদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ইতোমধ্যেই আমি তাদের উকিল নোটিশ পাঠিয়েছি, আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি শেষ করার আইনি প্রক্রিয়া এগিয়ে নিচ্ছি।

আমি সবাইকে অনুরোধ করব, আমার নাম বা ছবি দেখে বিভ্রান্ত হয়ে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে না জড়াতে।’





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST