ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে পুলিশ সুপারের সাথে হিন্দু ধর্মালম্বীদের মতবিনিময় নীলফামারীতে সামাজিক-সম্প্রীতি সমাবেশ হয়েছে। ডিমলায় কৃষক সমাবেশ ও আলোচনা সভা নীলফামারীতে ডিজি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভুল রিপোর্ট প্রদান, সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ। সাফের ইতিহাসে নতুন ইতিহাস গড়লেন সাবিনা কৃষ্ণারা ডিমলায় সড়ক দূঘর্টনায় ভিক্ষুকের মৃত্যু নীলফামারীতে চিরকুট লিখে আত্মহত্যা-স্বামী-সহ ৪ জনের নামে মামলা,স্বামী গ্রেফতার নীলফামারী সৈয়দপুরে পরিবারের অত্যাচারে সুইসাইড নোট লিখে গৃহবধূর আত্নহত্যা নীলফামারীতে বহুল প্রচারিত যুগের আলো পত্রিকার ৩০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। ডিমলায় সাংবাদিককে পেটালেন শিক্ষক স্বদেশ
নীলফামারীতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিতে চড়ম ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ

নীলফামারীতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিতে চড়ম ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ

মোঃ হারুন উর রশিদ,স্টাফ রিপোর্টার,

শুক্রবার মধ্যরাতে হঠাৎ করেই জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে নীলফামারীতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। চড়া দামে জ্বালানি তেল কিনতে হচ্ছে সকল যানবাহনকে। তাই রাস্তায় চলাচল কমে গেছে দুরপাল্লার বাস সহ ভাড়ি যানবাহনের। অনেকে বলছেন এই দুরবস্থায় এবার গাড়িও বিক্রি করে দিতে হবে। তাই জ্বালানি তেলের দাম নিয়ন্ত্রনের রাখার দাবী প্রাইভেট কার, মোটরসাইকেল চালক সহ সকলের।

তথ্য অনুযায়ী, গতকাল মধ্যরাতে অকটেন প্রতি লিটারে ৪৬ টাকা বৃদ্ধি করে ১৩৫ টাকা ধরা হয় এবং পেট্রোল পূর্বের মূল্য থেকে প্রতি লিটারে ৪৪ টাকা বৃদ্ধি করে ১৩০ টাকা করা হয়। ডিজেল ও কেরোসিনের প্রতি লিটারে ৩৪ টাকা বৃদ্ধি করে ১১৪ টাকা করা হয়। নীলফামারী জেলায় ৪৪ টি ফিলিং স্টেশনে সরকার নির্ধারিত মূল্যে এই তেল বিক্রি করা হয়।

শনিবার (০৬ আগস্ট/২২) সদর উপজেলার মেসার্স রকিবুল আলম চৌধূরী এল,পি,জি গ্যাস ফিলিং স্টেশন, মেসার্স রশিদা ভিলিং স্টেশন সহ বেশ কয়েকটি ফিলিং স্টেশন ঘুরে দেখা যায় বাস্তব চিত্র। ফিলিং স্টেশনগুলোতে তেমন একটা ভিড় না থাকলেও তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে গ্রাহকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

শহরের কালেক্টরেট পাবলিক স্কুল এ্যান্ড কলেজের শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায় বলেন, জ্বালানি খাতে মূল্যবৃদ্ধি হওয়ায় এর প্রভাব সকল খাতে পরবে। ফলে খরচ ও অনেক বেড়ে যাবে। তাই সরকারকে জ¦ালানি তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখা দরকার।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মোঃ রাফি বলেন, অনার্স শেষে করে কিছুদিন হয় মোটরসাইকেল কিনেছি। আমরা ছাত্র আমাদের সিমিত ব্যয়ের মধ্যে থাকতে হয়। যেভাবে তেলের দাম বৃদ্ধি হয়েছে তাতে মনে হয় এখন মোটরসাইকেলটাই বিক্রি করে দিতে হবে। তাই সরকারের কাছে আমাদের আবেদন জ্বালানি তেলের দাম স্বাভাবিকরে মধ্যে রাখা হোক।

ট্রাক চালক সামছুল ইসলাম বলেন, তেলের দাম বাড়ছে কিন্তু পরিবহন ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়নাই। পরিবহণ ভাড়া না বাড়ালে আমাদের তেল কিনতে সব শেষ হবে। আমরা চলবো কি করে?

মেসার্স রশিদা ফিলিং স্টেশনের ম্যানেজার মোঃ সইদুল বলেন, সরকার নির্ধারিত মূল্যে তেল বিক্রি করা হচ্ছে তবে মূল্য বৃদ্ধির কারণে যানবাহন চলাচল কমে গেছে।

উল্লেখ্য- এর আগে সর্বশেষ ২০২১ সালের ৪ নভেম্বর ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বাড়ানো হয়েছিলো। তবে ওই সময় পেট্রোল আর অকটেনের দাম অপরিবর্তিত রাখা হয়েছিল। ৮ মাসের ব্যবধানে আবার ও বাড়ানো হলো তেলের দাম।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST