ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে গণমাধ্যমকর্মীকে লাঞ্চিত করায় প্রতিবাদ সমাবেশ ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনা ও ঝামেলামুক্ত সেবা দানে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ নীলফামারীতে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে তথ্য চাইতেই গণমাধ্যমকর্মীর উপর চড়াও কিশোরগঞ্জে দুর্নীতিবাজ স্বাস্থ্য কর্মকর্তার অপসরণ ও শাস্তির দাবিতে নীলফামারীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে আলোচনা সভা ও সন্মননা স্মারক প্রদান ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর এশিয়া কাপ আরচারিতে বাংলাদেশের স্বর্ণপদক জয় নীলফামারীতে রোজিনা হত্যার বিচার কবে হবে জানতে চায় তার পরিবার ডিমলায় প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে গৃহ হস্তান্তরের শুভ উদ্বোধন করেন-মাননীয় প্রধানমন্ত্রী
নীলফামারীতে কুয়াশার চাঁদরে ঢাকা সকাল জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা

নীলফামারীতে কুয়াশার চাঁদরে ঢাকা সকাল জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা

মোঃ হারুন উর রশিদ,স্টাফ রিপোর্টার,
নীলফামারীতে কুয়াশার চাঁদরে ঢাকা সকাল আর দূর্বাঘাসের মাথায় শিশির বিন্দু জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। ষড়ঋতুর এই বাংলাদেশে এখন চলছে হেমন্তকাল। পৌষ-মাঘ দুই মাস শীতকাল হলেও আমাদের দেশে শীত শুরু হয় কার্তিক মাসের মাঝামাঝি সময়ে। তবে এবার একটু আগাম বার্তাই দিচ্ছে প্রকৃতি। সেইসাথে হেমন্তের এ শেষ পর্যায়ে জেলার সদর উপজেলার কুন্দপুকুর ইউনিয়নের সুটিপাড়া ও আশপাশের গ্রাম এলাকার মাঠে মাঠে সকাল দেখা যাচ্ছে শীতকালীন নানা সবজি ও ধানের আধা পাকা সবুজ শীষের দোল। কিছু কিছু জাতের আমন ধান কাটা শুরু হয়েছে।

সীমান্তবর্তী জেলা নীলফামারী। হিমালয়ের কাছাকাছি এই জেলার অবস্থান। তাই দেশের অন্যান্য জেলার তুলনায় এই জেলায় শীতের প্রকোপ একটু বেশিই দেখা যায়।

তাইতো বিকেল থেকে কুয়াশায় মুখ ঢাকছে মাঠঘাট। রাতভর টুপটাপ কুয়াশা ঝরছে ঘরের টিনে। সকালের পরে কুয়াশা কেটে উঁকি দিচ্ছে সূর্য। আশ্বিনের বৃষ্টি শেষে সন্ধ্যার পর শীত পড়তে শুরু করেছে এই জেলায়। এ বছর শীতের আগমন যেন কার্তিকের প্রথম থেকেই।শীতের আগমনী বার্তায় প্রস্তুতিও শুরু করেছে এ এলাকার মানুষ। বস্তাবন্দী রাখা গরম কাপড় বের করতে শুরু করেছে বিপনী বিধানগুলোও । সন্ধ্যায় ও ভোরে হাঁটা-হাঁটি শেষে জমছে চায়ের আড্ডা।

সরেজমিন দেখা গেছে, কুয়াশার চাদরে ঢাকা সকালে চারদিকে শুধুই সাদা ও নিরস প্রকৃতির হালকা অন্ধকার। দিগন্তজুড়ে যতদূর চোখ যায় সাদা সাদা জমাট বাঁধা বিন্দুর আবরণে ঢাকা রয়েছে শীত নামের এক ভয়ানক ঋতু শীত। হিম হিম অনুভব, এ যেন শীতের আহ্বান।

কুন্দপুকুর ইউনিয়নের সুটিপাড়া এলাকার কলেজ পড়ুয়া আব্দুর রহিম বলেন,শীত মানেই তো খেজুর রস, রসে ভেজানো মায়ের হাতে তৈরি নানা রকমের স্বাদে ভরা পিঠা, সকালের শিশিরভেজা ঘাস, প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় আগুন জ্বেলে আগুন পোহানো এমন আরও কত কী। এ যেন অপরূপ বাংলার চিরচেনা রূপের একটি অনুষঙ্গ। আমার কাছে শীতটা একটু অন্য রকম অনুভূতির।

একই এলাকার শান্তনা (৫০), ওলিয়া বেগম (৬৫), ওমেদা বেগম (৭০) সহ বেশ কয়েকজন গরীব অসহায়ের সাথে কথা হলে তারা বলেন, শীত আইলে হামার এইলার খুব কষ্ট হয়। হামরা গরীব মানুষ, ভালো কাপর ও কিনির পাই না। এবার ঠান্ডাত যাতে কাহো কষ্ট না পায় সেইজন্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছত অনুরোধ করি যাতে গরীব অসহায় মানুষের কষ্ট না হয়। হামাক যেন কাপর-চোপর কিনি দেয়।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন বলেন, হিমালয়ের কাছাকাছি জেলা আমাদের নীলফামারী। সেই কারনেই এখানে শীতের তীব্রতা একটু বেশি। শীত আসলে জেলা প্রশাসন আর্থিক সহায়তা সহ শীতের পোষাক দিয়ে অসহায়-দরিদ্র মানুষের পাশে থাকে। এই শীতেও অসহায়, দরিদ্র মানুষের যাতে কোন কষ্ট না হয় সেজন্য সকল ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST