ঘোষনা:
শিরোনাম :
চট্টগ্রামে একদিনে করোনায় হাজার পেরিয়ে শনাক্ত নীলফামারীর সৈয়দপুরে কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ডিমলায় গাড়ী চালক শ্রমিকদের মাস্ক পড়তে সচেতনতামুলক মতবিনিময় নীলফামারীতে ট্রাকের চাকায় পিষ্টে,নারী পোশাক কর্মীর মৃত্যু চট্টগ্রামে গনধর্ষণের পর হত্যা, মামলায় ১ জনের মৃত্যুদন্ড চট্টগ্রামে দুদকের মামলায় দুই রাজস্ব কর্মকর্তা কারাগারে নীলফামারীতে শীতের তীব্রতায় দুর্ভোগ,সূর্যের দেখা মিলবেনা সারাদিন বাংলাদেশের অগ্রগতির অদম্য গতি কেউ থামাতে পারবে না : প্রধানমন্ত্রী গভীর রাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত দুই নীলফামারীতে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় শিশু নিহত
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ,কোচিং সেন্টার পরিচালনা ও নোটবই সরবরাহে জরিমানা  ।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ,কোচিং সেন্টার পরিচালনা ও নোটবই সরবরাহে জরিমানা  ।

বাগমারা, রাজশাহী প্রতিনিধি,
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক , কোচিং সেন্টার পরিচালনা ও নোটবই সরবরাহের অভিযোগে তিন হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে  ভ্রাম্যমাণ আদালত ।
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বাবুল হোসেনের বিরুদ্ধে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কোচিং সেন্টার পরিচালনা ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে নোটবই সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অভিযোগের সত্যতা পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁকে জরিমানা করেছেন।

এলাকার লোকজন অভিযোগ করেন, সমসপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বাবুল হোসেন অনেক দিন ধরে উপজেলার হাটগাঙ্গোপাড়ায় কোচিং সেন্টার চালু করেছেন। শিক্ষার্থীদের পড়ানোর বিনিময়ে নিয়মিত বেতন নেন। শিক্ষার্থীদের কাছে নামসর্বস্ব প্রকাশনীর নোটবইও তিনি চড়া দামে বিক্রি করেন। এলাকাবাসী এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করে।

অভিযোগের ভিত্তিতে গতকাল সন্ধ্যায় বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পুলিশ নিয়ে সেখানে যান। এ সময় তিনি কোচিং সেন্টার পরিচালনা ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে নোটবই সরবরাহের প্রমাণ পান। পরে সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয়। আদালতের কাছে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কোচিং সেন্টার চালু ও নোটবই সরবরাহের অভিযোগ স্বীকার করেন। পরে তাঁর কাছ থেকে তিন হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এ ছাড়া কোচিং সেন্টারটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আদালতের বিচারক নির্বাহী হাকিম বাগমারার ইউএনও জাকিউল ইসলাম জানান, ভবিষ্যতে এ ধরনের অপরাধ করবেন না বলে মুচলেকা দিয়েছেন বাবুল হোসেন। এ ধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এই বিষয়ে শিক্ষক বাবুল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

বাগমারা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ছিদ্দিকুর রহমান বলেন, সরকারি নির্দেশ মেনে চলার জন্য শিক্ষকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST