ঘোষনা:
শিরোনাম :
নরসিংদীর রায়পুরায় গোলাগুলিতে এক কিশোর নিহত।আহত ৭জন। বাংলাভিশনের গাজীপুর প্রতিনিধির ব্যক্তিগত প্রাইভেটকারে ট্রাকের ধাক্কায় গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত । খুলনার ভৈরব নদ থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নীলফামারীর ডোমারে করোনা প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান প্রচারণার উদ্বোধন । বাগেরহাট সদরের তালশাস কাটাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত -১ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকায় ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৫। চট্টগ্রামে মিতু হত্যা মামলায় আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে ১৪ দিন পর ঢাকায় ফেরার অনুরোধ ২৩ মে পর্যন্ত লকডাউনে নতুন দুটি প্রজ্ঞাপন জারি।
ইচ্ছাকৃতভাবে যারা টাকা ফেরত দিচ্ছে না, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে,অর্থমন্ত্রী ।

ইচ্ছাকৃতভাবে যারা টাকা ফেরত দিচ্ছে না, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে,অর্থমন্ত্রী ।

ঢাকা প্রতিবেদক,
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন,কেউ অন্যায় করে এখন যদি স্বীকার করে অন্যায় করেছি, তাদের মাফ করে দেওয়া হবে।
বেসিক ব্যাংকের টাকা নিয়ে যারা ফুর্তি করেছে, তাদের কোনো মাফ নেই। সমস্যায় থাকা বেসিক ব্যাংক পরিদর্শনে গিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি এ কথা বলেন।
অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘যারা ব্যাংকের টাকা নিয়ে গেছে, এদের চিনি না এটা হতে পারে না। যাদের ঠিকানা আছে, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে চেয়ারম্যান ও এমডি আমাকে দেবেন। এরপর এদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া যায় দেখব। আইনি প্রক্রিয়ায় কী করা যায় দেখা হবে। ইচ্ছাকৃতভাবে কাউকে কষ্ট দেওয়া হবে না। তবে কেউ টাকা না দিলে তার জীবন শান্তিতে রাখা হবে না। ইচ্ছাকৃতভাবে যারা টাকা নিয়ে গেছে, ব্যাংকাররা বিভিন্ন কারণে তাদের খুঁজে পাচ্ছে না। তবে আমরা বের করব। কেউ অন্যায় করে এখন যদি স্বীকার করে অন্যায় করেছি, তাদের মাফ করে দেওয়া হবে। তবে টাকা নিয়ে যারা ফুর্তি করেছে, তাদের কোনো মাফ নেই।’

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব ফজলুল হককে নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে বেসিক ব্যাংকে যান অর্থমন্ত্রী। বৈঠকে স্বাগত বক্তব্য দেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন এ. মজিদ। ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রফিকুল আলম ব্যাংকের ২০০৯ থেকে ২০১৪ এবং বর্তমান পরিস্থিতির একটি চিত্র তুলে ধরেন। বৈঠকে অর্থমন্ত্রীর হাতে ক্রেস্ট দেওয়ার উদ্যোগ নিলেও তিনি তা গ্রহণ করেননি। এ সময় অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংকটি ভালো হলে কর্মকর্তাদের সঙ্গে পিকনিক করবেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বেসিক ব্যাংকে অনেক ঠিকানাবিহীন ঋণ আছে। ভবিষ্যতে কেউ আর ঠিকানাবিহীন থাকবে না। এদের খুঁজে বের করে প্রত্যেকের পেছনে একজন করে এজেন্সির লোক নিয়োগ দেওয়া হবে। ইচ্ছাকৃতভাবে যারা টাকা ফেরত দিচ্ছে না, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া টানা তিন বছর যেসব শাখা লোকসানে আছে, সব শাখা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। বিদ্যমান বেতন কমানো এবং যেসব কর্মকর্তা কথা শোনে না তাদের বিদায় করে দেওয়ার পরামর্শও দেওয়া হয়।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST