ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে পবিত্র ঈদ-উল ফিতরের আগে সরকারী আর্থিক সহায়তা না পাওয়ার শংকায়  সুবিধাভোগীরা। নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ইফতার কিনতে যাওয়া হলনা শরিফুদ্দিনের । ডোমারে শিক্ষার্থীদের জন্য অভিভাবকদের মাঝে খাবার বিতরণ। যশোরের বেনাপোল কাস্টমস হাউস দেশের প্রথম ডিজিটাল কাস্টমস হাউসে উন্নীত। স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্যদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান। করোনা কালীন পরিস্থিতি ও পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দুই শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ। কিশোরগঞ্জে সিটিজেন চার্টার না থাকায় মৎস্য চাষীরা সেবা বঞ্চি। নীলফামারীতে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা ইফতার উপহার পেলেন অসহায় ও দরিদ্র মানুষ। নীলফামারীতে ভুল চিকিৎসায় পঙ্গু জাহিদুল, পরিবার বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা। চট্টগ্রামে করোনায় আরো ৫ জনের মৃত্যু ।
রাজধানীর মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু ।

রাজধানীর মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু ।

ঢাকা, বিশেষ প্রতিনিধি,
রাজধানীর মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বেশি পরিমাণে এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় সেখানে পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু হয়েছে আজ শুক্রবার সকালে পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা ও মুগদা মেডিকেলে খুব বেশি পরিমাণে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।সরকারের রোগনিয়ন্ত্রণ শাখার সর্বশেষ মশা জরিপের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজধানীর মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে খুব বেশি পরিমাণে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে। একই প্রতিবেদন বলা হয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও ঝুঁকিপূর্ণ পর্যায়ে এডিস মশা রয়েছে। কীটতত্ত্ববিদেরা মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮০ শতাংশ পাত্রে (পরিত্যক্ত কৌটা, বোতল, বালতি, জগ, কার্নিশ ইত্যাদি) এডিস মশার লার্ভা পান। ৩১ জুলাই থেকে ৪ আগস্ট পর্যন্ত সরকারের রোগনিয়ন্ত্রণ শাখা ঢাকার ১৪টি এলাকায় এ জরিপ করে। তারা বিভিন্ন পাত্রে জমে থাকা পানিতে এডিস মশার লার্ভা পরীক্ষা করে দেখে। এর মধ্যে ১২টি জায়গায় ঝুঁকিপূর্ণ পর্যায়ে লার্ভা পাওয়া যায়।সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেছেন, একটি এলাকায় ২০ শতাংশের বেশি পাত্রে লার্ভা পাওয়া গেলে পরিস্থিতি ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচনা করা হয়।৮০ শতাংশের বেশি পাত্রে লার্ভা পাওয়া যায় পাঁচটি স্থানে। এগুলো হচ্ছে মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কমলাপুর বিআরটিসি বাস ডিপো, কমলাপুর রেলওয়ে কলোনি, মহাখালী বাসটার্মিনাল ও শাহজাহানপুর বস্তি। গাবতলী বাসটার্মিনাল, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মিরপুর-১২-এর বিআরটিসি বাস ডিপোতে এডিস মশার ঝুঁকি একই পর্যায়ে। জরিপকারীরা দেখেছেন, এই তিন স্থানে ৬০-৮০ শতাংশ পাত্রে এডিসের লার্ভা আছে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST