ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে পুলিশ সুপারের সাথে হিন্দু ধর্মালম্বীদের মতবিনিময় নীলফামারীতে সামাজিক-সম্প্রীতি সমাবেশ হয়েছে। ডিমলায় কৃষক সমাবেশ ও আলোচনা সভা নীলফামারীতে ডিজি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভুল রিপোর্ট প্রদান, সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ। সাফের ইতিহাসে নতুন ইতিহাস গড়লেন সাবিনা কৃষ্ণারা ডিমলায় সড়ক দূঘর্টনায় ভিক্ষুকের মৃত্যু নীলফামারীতে চিরকুট লিখে আত্মহত্যা-স্বামী-সহ ৪ জনের নামে মামলা,স্বামী গ্রেফতার নীলফামারী সৈয়দপুরে পরিবারের অত্যাচারে সুইসাইড নোট লিখে গৃহবধূর আত্নহত্যা নীলফামারীতে বহুল প্রচারিত যুগের আলো পত্রিকার ৩০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। ডিমলায় সাংবাদিককে পেটালেন শিক্ষক স্বদেশ
গোবিন্দগঞ্জে রংপুর চিনিকলের বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে আবারো দুই গ্রুপের মারামারি ।

গোবিন্দগঞ্জে রংপুর চিনিকলের বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে আবারো দুই গ্রুপের মারামারি ।

কামরুল হাসান, গাইবান্ধা প্রতিনিধি ,
গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জে স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রংপুর চিনিকলের বিরোধপূর্ণ জমিতে হালচাষ করতে গেলে চিনিকল শ্রমিক ও সাঁওতালদের মাঝে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। আজ ২৮ আগস্ট বুধবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রংপুর চিনিকলের শ্রমিকরা ট্রাক্টর নিয়ে সাহেবগঞ্জ ইক্ষুখামারের জমি চাষ করতে যান। এসময় সাঁওতালরা নিজেদের বাপ-দাদার জমি দাবী করে জমি চাষে বাধা প্রদান করলে চিনিকলের শ্রমিকরা সাঁওতালদের মারপিট করে। এতে তাদের ৩জন আহত হন।
সাহেবগঞ্জ-বাগদাফার্ম ভূমি পূনরুদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. ফিলিমন বাস্কে অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে উভয়কে ডেকে বলা হয়েছে যেহেতু জমিগুলো নিয়ে বিরোধ চলছে সেহেতু বিরোধ নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কেউ উক্ত জমিতে যেতে পারবেন না। চিনিকল কর্তৃপক্ষ প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বার বার জমি চাষাবাদের চেষ্টা করছে। বুধবার বিরোধপূর্ণ জমিতে আবারো চাষ করতে গেলে শ্রমিকরা তাদের লোকজনদের মারপিট করে। এতে চুনু, সবুজ মিয়া ও জাকারিয়া ইসলাম নামের ৩জন আহত হন। এদিকে, চিনিকল শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,আমাদের লোকজনও আহত হয়েছে। এ মারপিটের বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত) একেএম মেহেদী হাসান সাংবাদিকদের বলেন, চিনিকল কর্তৃপক্ষ ও সাঁওতালরা উভয়পক্ষই তার কাছে মারপিটের অভিযোগ করছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয়কে বুঝিয়ে জমি থেকে ট্রাক্টর তুলে দেন। সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ বর্মণের সকাছে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজির হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাহী কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ বর্মণ ছুটিতে রয়েছেন। বিষয়টি সমাধানের জন্য জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। আমরা সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছি। এই মুহুর্তে সেখানকার বিষয়ে কোনো সিন্ধান্ত আমরা দিতে পারিনা।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST