ঘোষনা:
শিরোনাম :
আওয়ামীলীগ হিন্দুদের দল, ভারতের চর এসব ট্যাবলেটে এখন আর কাজ হয়না,তথ্যমন্ত্রী হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় ৬ বছর পূর্তিতে,কূটনীতিকরা নিহতদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা বিকেএসপিতে ব্লু খেতাব অর্জন,দেশসেরা নারী আরচার নীলফামারীর দিয়া সিদ্দিকী জাতি হিসেবে আমাদের সক্ষমতাকে সবসময় অবমূল্যায়ন করে সমালোচকরা বললেন,প্রধানমন্ত্রী খাগড়াছড়িতে ৭ম টিআরসি ব্যাচের প্রশিক্ষণ সমাপনী নীলফামারীর ডিমলায় মাদকদ্রব্যের রোধকল্পে কর্মশালা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে রায়পুরায় কাভার্ডভ্যান চাপায় নিহত,৩ আহত ৫ চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৭০ জন  জলঢাকা পৌরসভার ৭৯ কোটি ৭৯ লক্ষ ১ হাজার ৭ শত ৩০টাকার বাজেট ঘোষনা কিশোরগঞ্জে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ণে কর্মশালা
ডোমারে প্রধান শিক্ষকের গাফিলতির কারনে জেএসসি পরীক্ষা দিতে পারলো না কবিতা রানী

ডোমারে প্রধান শিক্ষকের গাফিলতির কারনে জেএসসি পরীক্ষা দিতে পারলো না কবিতা রানী

নীলফামারী প্রতিনিধি ,
জেলার ডোমারে প্রধান শিক্ষকের গাফিলতির কারনে ২রা নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া জেএসসি পরীক্ষা দিতে পারছে না কবিতা রানী রায় নামে এক শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় মাসসিকভাবে ভেঙ্গে পরেছে শিক্ষার্থী কবিতা রানী। উপজেলার বামুনিয়া ইউনিয়নের বামুনিয়া দ্বি-মুখী এস,সি উচ্চ বিদ্যালয়ে ঘটনাটি ঘটেছে। এ ব্যাপারে ওই শিক্ষার্থী ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করবেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। কবিতা রানী বামুনিয়া ইউনিয়নের বারবিশা বামুনিয়ার ইউপি সদস্য বিনয় চন্দ্র রায়ের মেয়ে।
উপজেলার বামুনিয়া দ্বি-মুখী এস,সি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চলতি জেএসসি পরীক্ষায় ১২৩ জন পরীক্ষার্থী জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহনের জন্য রেজিষ্ট্রেশন করে। ১২২ জন শিক্ষার্থী জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিলেও প্রধান শিক্ষক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের গাফিলতির কারনে কবিতা রানীর রেজিষ্ট্রেশন হয়নি। গত ৩১ অক্টোবর কবিতা রানী প্রবেশপত্র আনার জন্য স্কুলে গেলে সেখানে গিয়ে জানতে পারে তার প্রবেশপত্র আসেনি। ফলে কবিতা রানী চলতি জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছে না।কবিতা রানীর বাবা ইউপি সদস্য বিনয় চন্দ্র রায় বলেন,বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের গাফিলতির কারনে তার মেয়ের ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পরেছে। তিনি সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে এ ঘটনার বিচার দাবী করেন। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক প্রতিমা মিত্র জানান,কবিতা নিয়মিত স্কুলে আসতো। তার পরীক্ষা দিতে না পারাটা দুখঃজনক।
বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য জাহাঙ্গির হোসেন ও আশরাফুজ্জামান সোহাগ বলেন, জেএসসি পরীক্ষা সমন্ধে প্রধান শিক্ষক আমাদের কিছু জানাননি। তিনি তার ইচ্ছামত কাজ করেন। প্রধান শিক্ষকের সদিচ্ছা থাকলে আজ কবিতা রানীও পরীক্ষায় অংশ নিতে পারতো।তার অবহেলার কারনেই একবছর শিক্ষা জীবন নষ্ট হলো কবিতা রানীর। বিদ্যালয়ের সভাপতি রনজিৎ অধিকারী দিলিপ একজন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছে না বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের কেরানীর গাফিলতি রয়েছে।কবিতা রানী রায় কান্না জড়িত কন্ঠে জানান,প্রবেশপত্র আনতে গিয়ে যখন জানতে পারি প্রবেশপত্র আসেনি তখন প্রধান শিক্ষকের কাছে গিয়ে বিষয়টি অবগত করলে তিনি আমাকে সান্তনা না দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেন। প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে একাধিকবার মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে ফোন রিসিভ না করায় এ বিষয়ে তার মন্তব্য জানা যায়নি।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST