ঘোষনা:
শিরোনাম :
জাদুঘর স্থাপনের প্রস্তাবিত জমি পরিদর্শন করেছে,প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব চট্টগ্রামে চোরাইকৃত ৭ টি সিএনজি উদ্ধারসহ ৬ জনকে আটক করেছে র্যা ব। সাতক্ষীরায় ১০ম শ্রেণির স্কুল ছাত্রীর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার কুন্দপুকুর ইউনিয়নকে উন্নয়নের ধারায় ফিরিয়ে আনতে লালু সমর্থক গ্রূপের সাথে মতবিনিময়। সাতক্ষীরার কলারোয়ার সোনাবাড়ীয়া ইউনিয়নে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবীতে মানববন্ধন জলঢাকায় ৫২ বোতল ফেন্সিডিল সহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নীলফামারীতে ইউনিয়ন উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত।  সিলেটের ব্যাংকের বুথে লুটপাটের ঘটনায় ৪ জনের রিমান্ড মঞ্জুর ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ২ উপসর্গ নিয়ে ২ , মৃত্যু ৪ চট্টগ্রামে করোনায় মৃত্যু ৩,আক্রান্ত ১৬৫
শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা গাইনি বিশেষজ্ঞ ডাঃ জাকিয়া সুলতানা।

শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা গাইনি বিশেষজ্ঞ ডাঃ জাকিয়া সুলতানা।

পটুয়াখালী  জেলা প্রতিনিধি ,
পটুয়াখালীত একজন শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক গাইনি বিশেষজ্ঞসহ চার ক্যাটাগরিতে সাতজন সেরা করদাতা সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করেছেন।এদেরই একজন শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. জাকিয়া সুলতানা।গত বুধবার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে বরিশালের গ্র্যান্ড পার্ক হোটেলে ডা. জাকিয়া সুলতানার হাতে এই সম্মাননা স্মারক তুলে দেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক। তিনি লেখাপড়া শেষ করে চাকরি জীবন শুরুর পর আয়কর দাতা হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করেন স্বামীর অনুপ্রেরনায়। এর ফলশ্রুতিতে এ বছর শ্রেষ্ঠ নারী করদাতার সম্মাননা পেয়েছেন তিনি।
জানা গেছে, কুড়িগ্রামের স্থানীয় একটি কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মরহুম তাসির উদ্দিন আহমেদ ও মা আকলিমা খাতুন দম্পতির মেয়ে ডা. জাকিয়া সুলতানা।
শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা ডা. জাকিয়া সুলতানা বলেন, কুড়িগ্রামে বাবা, দাদা, নানার অনেক সম্পদ ছিল। তবুও চলার পথ কখনও সহজ ছিল না। ১৯৯৪ সালে মেডিকেলে ভর্তি হই। এরপর এফসিপিএস পাস করি। ২০০৬ সালে সরকারি চাকরিতে যোগদান করি।
তিনি আরও বলেন, আমার স্বামী গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. ওহিদুজ্জামান আয়কর দেয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন। এরপর ২০১২ সালে আয়কর দাতা হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করি। এরপর আয় বাড়তে থাকে, আমিও আয়কর বাড়িয়ে দিতে শুরু করি। তার কারণে আমি এবার প্রথমবারের মতো জেলায় শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা নির্বাচিত হই।
ডা. জাকিয়া সুলতানা বলেন, আমরা যারা আয়কর দেই তারা সরকারের পদ্মাসেতুর মতো মেগা প্রকল্পের প্রশংসার দাবিদার। আয়কর দিলে দেশের টাকা দিয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন করা যায়।
তিনি আরও বলেন, চিকিৎসকদের অবৈধ পথে টাকা আয় করার সুযোগ নেই। নারী চিকিৎসকদের কষ্ট অনেক। অফিস চলাকালীন সময়ে অফিস করা, অপারেশন করে, রোগী দেখে রাত ৩টা-৪টার সময় বাসায় ফিরতে হয়। এরপর সন্তান, সংসার দেখতে হয়।
পটুয়াখালীর উপকর কমিশনার জেসমিন আক্তার জানান, ২০১৯ সালের চার ক্যাটাগরিতে মোট সাতজন সেরা করদাতা নির্বাচিত হয়েছেন। পটুয়াখালীর সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন- ব্যবসায়ী নাজমুস সায়াদাত, ব্যবসায়ী স্নেহাংশু সরকার ও ব্যবসায়ী সঞ্জয় কর্মকার। দীর্ঘ সময় ধরে আয়কর প্রদানকারী সেরা করদাতারা হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ অ্যাডভোকেট শাহজাহান মিয়া ও ব্যবসায়ী হারুন উল ইসলাম। এ বছর তরুণ (৪০ বছরের মধ্যে) সেরা করদাতা হয়েছেন আজাদুল ইসলাম। শ্রেষ্ঠ নারী করদাতা হয়েছেন ডা. জাকিয়া সুলতানা।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST