ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে গৃহহীনদের মাঝে জমিসহ ঘরের চাবি হস্তান্তর ডোমারে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণে অনিয়মের তদন্ত নীলফামারীতে গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল সহ ঘরের চাবি হস্তান্তর। নীলফামারীতে আশ্রয়হীন ১২৫০ পরিবারের স্বপ্ন এখন সত্যি কিশোরগঞ্জ মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের রড চুরি- ধ্রুত চোরকে ছেড়ে দিল কর্তৃপক্ষ নীলফামারীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু রাত পোহালেই ডিমলায় নতুন ঘরে উঠবেন ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার ওয়ালটনের মিলিয়নিয়ার অফারে ফ্রিজ কিনে ১০ লক্ষ টাকা পেলেন জলঢাকার মতি টাঙ্গাইলে নতুন ৯২ জন করোনা শনাক্ত বাংলাদেশ সরকারের প্রথম অর্থ সচিবের স্ত্রী কুলসুম জামান আর নেই
নীলফামারী জলঢাকায় অগ্নিকান্ডে দোকান পুড়ে ছাই ।

নীলফামারী জলঢাকায় অগ্নিকান্ডে দোকান পুড়ে ছাই ।

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
ফায়ার সার্ভিসের গাফিলতির কারনে আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছে আটটি দোকান ও একটি গোডাউন ঘরের প্রায় অর্ধ কোটি টাকার মালামাল। আজ (১২এপ্রিল) শুক্রবার ভোর রাতে এ অগ্নিকান্ড ঘটেছে নীলফামারীর জলঢাকা পৌর শহরের জেলা পরিষদ মার্কেটে।  জানা যায়, ভোরে বিদ্যুত সর্ট সার্কিটে আগুনের সূত্রপাতের ঘটতে পারে বলে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা জানান। ব্যবসায়ীরা আরো জানায় খবর পেয়ে জলঢাকা ফায়ার সার্ভিস আসলে যান্ত্রিক সমস্যার কারনে আগুন নিয়ন্ত্রণে কিছুটা বিলম্ব হয়। পরে কিশোরগঞ্জ ও ডিমলার ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এতে প্রায় অর্ধ কোটি টাকা ক্ষতিগ্রস্থ্য হয় । ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা হলেন, খান স্টোরের মালিক ওবায়দুল ইসলাম, রাহাত হোটেলের আমিনুর রহমান, এস ডি কম্পিউটার ব্যবসায়ী সিমন বাবু, লুনা স্টোরের নুর ইসলাম, গোডাউন মালিক মাহবুবুর রহমান, মুদির দোকানদার লক্ষিরাম রায় ও টিভির মেকানিক্স আব্দুল ছাত্তার। শুক্রবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সুজাউদ্দৌলা পুড়িয়ে যাওয়া স্থানটি পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্থদের সরকারি সহায়তার আশ্বাস দেন। পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন থানা অফিসার ইনচার্জ সহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ।জলঢাকা ফায়ার সার্ভিসের  স্টেশন ইনচার্জ মমতাজ আলী জানান,আমি অসুস্থ, তারপরও ঘটনাস্থলে গিয়ে কিশোরগঞ্জ ও ডিমলার ইউনিট কে জানাই তারাও এসেছিল। আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণে না আনলে আরো অনেক দোকানঘর পুড়ে যেত।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST