ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারী চৌরঙ্গীতে আগুন, দোকান ভস্মীভূত নীলফামারী উত্তরণ নার্সিং এন্ড মিডওয়াইফারি ইনস্টিটিউটের আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত সাতক্ষীরায় ২০ মেট্রিক টন অপরিপক্ক আম জব্দের পর তা বিনষ্ট নীলফামারী সদর উপজলোর মনোনয়ন যাচাই শেষ, এক চেয়ারম্যান প্রার্থির মনোনয়ন অবৈধ নীলফামারীতে মহান মে দিবস পালিত নীলফামারীতে গচ্ছিত জামানত ও পি.এফ এর টাকা উদ্ধারের দাবীতে প্রোণ অফিস ঘেরাও। নীলফামারীতে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ। নীলফামারী জলঢাকার পৌরসভায় নোভা বিজয়ী নীলফামারীর জলঢাকা উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থির পক্ষে প্রচারণা, এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন। নীলফামারীতে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে সাংবািদকের নামে থানায় মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিএনপির শীর্ষ ছয় নেতার নাম উল্লেখ করে আদালতে মামলা

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিএনপির শীর্ষ ছয় নেতার নাম উল্লেখ করে আদালতে মামলা

ঢাকা প্রতিবেদক ,

হত্যার হুমকি, মারধর ও জামা ছিড়ে ফেলার অভিযোগে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিএনপির শীর্ষ ছয় নেতার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ. বি. সিদ্দিকী। আজ রোববার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত সিদ্দিকীর অভিযোগ তদন্ত করে ঢাকার বংশাল থানার ওসিকে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

গ্রামপোষ্টকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন ওই আদালতের পেশকার গৌতম চন্দ্র দাস।আদালত আদেশে বলেছেন, সত্যতা নির্ণয়ের জন্য বাদী সিদ্দিকীর অভিযোগের তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। আদালত সূত্র বলছে, এ. বি. সিদ্দিকী সকালে আদালতে হাজির হয়ে জবানবন্দি দেন। সিদ্দিকীর ওই জবানবন্দি রেকর্ড করেন ঢাকার মহানগর হাকিম আবু সুফিয়ান মো. নোমান। সিদ্দিকী আদালতের কাছে দাবি করেন, গত ৩০ এপ্রিল একটি মামলায় ঢাকার আদালতে তাঁর হাজিরা ছিল। এ জন্য তিনি ওই দিন সকালে পুরান ঢাকার তাঁতিবাজার মোড় দিয়ে আদালতের দিকে হেঁটে আসছিলেন। এ সময় তাঁর সামনে এসে দাঁড়ায় অজ্ঞাত চার-পাঁচজন ছেলে। তারা সিদ্দিকীকে হুমকি দিয়ে বলে, ‘তুই আমাদের মায়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছিস। এক মাসের মধ্যে সব মামলা তুলে নিবি। তা না হলে নুসরাতের মতো তোর গায়ে আগুন দেব। এ সময় তারা আমার গায়ের মুজিব কোট খুলে ফেলে।’এ. বি. সিদ্দিকী লিখিতভাবে আদালতকে আরও বলেন, ‘হামলাকারীরা বলেন, তারেক রহমানের নির্দেশে ও আমাদের ঊর্ধ্বতন নেতাদের নির্দেশে প্রস্তাব দিচ্ছি, এক মাসের মধ্যে মামলা তুলে না নিলে তোর পরিণতি হবে ভয়াবহ। মামলা তুলে না নিলে তোর সরকার আমাদের হাত থেকে তোকে বাঁচাতে পারবে না।’নালিশি মামলায় আরও বলা হয়, হত্যার হুমকি দিয়ে অজ্ঞাত বিএনপির ওই পাঁচজন ব্যক্তি তাঁর কাছে থাকা ২ হাজার ২০০ টাকা কেড়ে নেয়। যাওয়ার আগে হুমকি দিয়ে বলে, ‘তুই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা করেছিস। তোর মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকায় খালেদা জিয়া মুক্তি পাচ্ছে না।’আদালত সূত্র বলছে, জননেত্রী পরিষদের এ. বি. সিদ্দিকী এর আগে খালেদা জিয়া, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ বিএনপির একাধিক নেতার নামে ঢাকার আদালতে মামলা করেছেন। সেসব মামলা এখন ঢাকার আদালতে বিচারাধীন।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST