ঘোষনা:
শিরোনাম :
সাতক্ষীরায় প্রেমিকার বাড়ীতে নির্মম নির্যাতনের শিকার টেক্সটাইলস ইঞ্জিনিয়ার রংপুরে ক্যামেরায় কথা বলছে, গ্রামীন জনপদের ফরিদপুরে বাস পিক-আপ মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১২, আশঙ্কাজনক ৩ পহেলা বৈশাখে বর্ণিল উৎসবে মেতেছে নীলফামারী সাতক্ষীরায় ভিডিও কলে রেখে ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে বিউটিশিয়ানের আত্মহত্যা নীলফামারীতে ঘোড়ার প্রতি পাকে,পরিবারে জীবনের গল্পটা কস্টের নীলফামারীতে কর্মসংস্থান কর্মসূচি প্রকল্পের কাজের উদ্বোধন ঈদে বাড়ি ফেরা হলো না, শিশু সন্তান সহ পরিবারের  ঈদে ৫ দিন বন্ধের পরে, সাতক্ষীরা স্থলবন্দরে আমদানী-রপ্তানী শুরু, কর্মচাঞ্চল্য বাগেরহাটে পুকুরে স্যাটেলাইট কুমির উদ্ধার, অবমুক্ত সুন্দরবনে
গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, উন্নয়নের গুণগত মান বৃদ্ধি করতে হবে।

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, উন্নয়নের গুণগত মান বৃদ্ধি করতে হবে।

ঢাকা প্রতিবেদক ,

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, উন্নয়নের গুণগত মান বৃদ্ধি করতে হবে। আমরা শুধু উন্নয়নের কথা এখন বলতে চাই না। বলতে চাই টেকসই উন্নয়নের কথা। কোনভাবেই যেন একটি সৃষ্টি বিপন্নতার দিকে চলে না যায়। গণপূর্ত বিভাগের একজন প্রকৌশলী বা নির্মাণকাজে সম্পৃক্তদের আন্তরিকতা, স্বচ্ছতা, সততা আর নিষ্ঠার দ্বারা কাজ না হলে সে কাজের ক্ষতি হবে সুদূরপ্রসারী। ফলে দায়দায়িত্বের জায়গা আমাদের কঠিন ও কঠোরভাবে মনেপ্রাণে বোধ করতে হবে।

আজ রোববার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় গণপূর্ত অধিদপ্তরের সম্মেলনকক্ষে গণপূর্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণপূর্তমন্ত্রী এসব কথো বলেন।গণপূর্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের বড় ধরনের উন্নয়নে চালিকা শক্তি বা ক্যাপ্টেন আপনারা। সে কারণে আপনাদের দায়বদ্ধতা অনেক বেশি। গণপূর্ত অধিদপ্তরের কাজের সঙ্গে রাষ্ট্রব্যবস্থার সবাই সম্পৃক্ত। তাই আপনাদের কাজের পরিসর আরও বাড়াতে হবে, বাড়াতে হবে গুণগত মান। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে মাত্র ১৩ মাসে ২০ তলা ভবন পুরোপুরিভাবে সম্পন্ন করার কৃতিত্ব যাঁরা নিতে পারেন, তাঁদের কেন ছোটখাটো বিষয়ে বদনামের বোঝা নিতে হবে। আপনারা প্রমাণ করেছেন, আপনাদের যোগ্যতা, দক্ষতা অনেকের চেয়ে অনেক বেশি। সেই দক্ষতা, যোগ্যতার বিস্তার কেন হবে না। সেটা নির্দিষ্ট জায়গায় সীমাবদ্ধ থাকবে না।’

অনাকাঙ্ক্ষিত হস্তক্ষেপে আমি বিশ্বাস করি না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে কোথাও কাউকে বলিনি নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে কাজ করেন। আমার মনে হয়েছে, আমরা যে যাঁর জায়গা থেকে দায়িত্ব পালন করব। তবে সেই জায়গাতে আমি হস্তক্ষেপ করি এবং করব, যদি দৃশ্যমান হয় যে কাজটি হওয়া উচিত ছিল, সেটি হয়নি। মেরামতের নামে কাজ না করে কোটি কোটি টাকা বিনষ্ট করলে আমি চোখ বন্ধ করে থাকব না। মেরামতের নামে অর্থ অপচয়ের অভিযোগ আছে। এই অভিযোগ আমি শুনতে চাই না। তবে আপনাদের কেউ হুমকি দিয়ে, প্রভাব বিস্তার করে কাজের পথে বাধা সৃষ্টি করলে আমি যেকোনো পরিস্থিতিতে আপনাদের পাশে আছি। আপনারা কোনো হুমকিতে অথবা অনাকাঙ্ক্ষিত হস্তক্ষেপে ভীত সন্ত্রস্ত হবেন না, কাজের গতি স্তিমিত করবেন না।’

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাজের ওপর অনাকাঙ্ক্ষিত হস্তক্ষেপ করার বাজে সংস্কৃতি আমাদের দেশে চালু হয়ে গেছে উল্লেখ করে গৃহায়ণমন্ত্রী বলেন, ‘আমি যত দিন এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আছি, এই হস্তক্ষেপ যে যেখানে করবে, সে সফল হতে পারবে না । আপনারা মাথা নোয়াবেন না। মেরুদণ্ড সোজা করে আপনাদের দায়িত্ব পালন করবেন। সরকারের চেয়ে প্রভাবশালী দেশে কেউ না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সবাই একটি সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করতে চাই । সে কাজে আমরা গুণগত মান নিশ্চিত করতে চাই। রাষ্ট্রকে সাশ্রয়ী করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে চাই। অপ্রয়োজনীয় ব্যয় পরিহার করতে চাই। আর অবৈধ হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার জন্য আহ্বান জানাতে চাই।’

গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. সাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আখতার হোসেন ও ড. মো. আফজাল হোসেন এবং গণপূর্ত অধিদপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST