ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে পুলিশকে ব্যবহার করে জোরপূর্বক অন্যের জমি দখল নীলফামারীতে জোরপূর্বক মসজিদের সভাপতি হওয়ার পায়তারা, মুসল্লীদের মানববন্ধন। ডিমলায় সরকারী সেবা জনগনের দোরগোড়ায় দিতে চান ইউএনও উম্মে সালমা নীলফামারীতে পবিত্র ঈদুল আযহায় জেলা পুলিশের উৎসব সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আত্মসমর্পনকারী বনদস্যুর মাঝে ঈদ উপহার সাতক্ষীরার দুটি উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের চাবী ও দলিল দিয়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা নীলফামারীতে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও জমির মালিকানা বহালে সংবাদ সম্মেলন মিথ্যা প্রলোভনে পাহাড়ের নারীদের পাচার করছে একটি সংবদ্ধ চক্র সাতক্ষীরায় ভাঙান মাছ চাষ পদ্ধতি ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা গ্রামীণব্যাংকের সেবার মান বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি,
নীলফামারীর কচুকাটা ইউনিয়নে ভিজিএফ’র আইডি কার্ড সংগ্রহ, এক শত থেকে দুই শত টাকা নেয়ার অভিযোগ।

নীলফামারীর কচুকাটা ইউনিয়নে ভিজিএফ’র আইডি কার্ড সংগ্রহ, এক শত থেকে দুই শত টাকা নেয়ার অভিযোগ।

নীলফামারী প্রতিনিধি ॥
ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নীলফামারীর কচুকাটা ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ভিজিএফ’র স্লিফ দেওয়ার জন্য আইডি কার্ড সংগ্রহ করতে সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের দালালরা এক শত থেকে দুই শত টাকা নেয়ার অভিযোগ করেছে হতদরিদ্র মানুষ।সরেজমিনে জেলার কচুকাটা ইউনিয়নের মাঝাপাড়া,কুটিপাড়া বাজিত পাড়া,দুহুলী বাজার এলাকায় সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের দালালরা ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ভিজিএফ’র স্লিফ দেওয়ার কথা বলে এলাকার হত দরিদ্র দরিদ্র মানুষের কাছে এক শত থেকে দুই শত টাকা তুলছে।যারা টাকা দিতে পারছে,তাদের আইডি কার্ড নেওয়া হচ্ছে,আর যাদের টাকা নাই,তাদের আইডি কার্ড ফেরত দিচ্ছে। মাঝা পাড়া এলাকার মতিনা বেগম,স্বামী মোকছেদ আলী,রেহেনা বেগম, স্বামী মোঃ সিরাজুল,রেহেনা বেগম স্বামী মোসলেম উদ্দিন । কুটি পাড়া সেরিনা বেগম স্বামী মোঃ আহেদুর ,হাফিজা বেগম স্বামী মোঃ তফছের আলী।এদের কাজ থেকে দালালদের মাধ্যমে এক শত টাকা করে তোলা হয় । সেরিনা বেগম স্বামী মোঃ আহেদুল বলেন গত ঈদে চেয়ারম্যানে পিছনে পিছনে ঘুরতে ঘুরতে বিরক্ত হয়েছি কিন্তু এক কেজিও চালও পাইনি।এবার স্লিফের কথা বললে একশত করে টাকা চায়,টাকা দিতে পারিনি বলে আমাকে স্লিফ দেয়নি।তার স্বামী মানুষের বাড়িতে কাজ করলে,ভাত পায় না হলে উপোষ থাকতে হয়।আমাকে ৭ ছেলে মেয়ে নিয়ে অনেক কষ্টে দিন কাটতে হয়।এ বিষয়ে কুচুকাটা ইউপি সংরক্ষিত মহিলা সদস্য জেলেখা বেগমের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি মোবাইলের ০১৭০১৯৪১৬৭৬ নম্বর ফোন তুলেননি।এ বিষয়ে কুচুকাটা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ চৌধুরী বলেন,কিছুটা কানে এসেছে বিষয়টি বিধি মোতাবেক ব্যাবস্থা নেয়া হবে। কচুকাটা ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ভিজিএফ’র ৫৯০০ জন হত দরিদ্র ও দরিদ্র মানুষের জন্য বরাদ্দ জন প্রতি ১৫ কেজি চাল।নীলফামারী সদরে ৯০ হাজার ৬৯০ জন।

নীলফামারীতে আসন্ন ঈদুল ফিতরে ৪ লাখ ৪ হাজার ৩১৫ জন অতি দরিদ্র মানুষ ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় ১৫ কেজি করে চাল পাবে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST