ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে পবিত্র ঈদ-উল ফিতরের আগে সরকারী আর্থিক সহায়তা না পাওয়ার শংকায়  সুবিধাভোগীরা। নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ইফতার কিনতে যাওয়া হলনা শরিফুদ্দিনের । ডোমারে শিক্ষার্থীদের জন্য অভিভাবকদের মাঝে খাবার বিতরণ। যশোরের বেনাপোল কাস্টমস হাউস দেশের প্রথম ডিজিটাল কাস্টমস হাউসে উন্নীত। স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্যদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান। করোনা কালীন পরিস্থিতি ও পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দুই শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ। কিশোরগঞ্জে সিটিজেন চার্টার না থাকায় মৎস্য চাষীরা সেবা বঞ্চি। নীলফামারীতে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা ইফতার উপহার পেলেন অসহায় ও দরিদ্র মানুষ। নীলফামারীতে ভুল চিকিৎসায় পঙ্গু জাহিদুল, পরিবার বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা। চট্টগ্রামে করোনায় আরো ৫ জনের মৃত্যু ।
পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন,জমি জবরদখলের ।

পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন,জমি জবরদখলের ।

পঞ্চগড় প্রতিনিধি ,

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান ও তার অনুসারিদের বিরুদ্ধে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে জমি দখল ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ উঠেছে। গত সোমবার রাতে পঞ্চগড় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেমলনে ভুক্তভোগীরা এসব অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বীর মামাত বোন ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিরিক্ত রেজিস্টার ড. শেখ সা’দ আহমেদের স্ত্রী ড. জিন্নাত আরা রোকেয়া চৌধুরী রা¯œা লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ২৩ বছর আগে তিনি, তার স্বামী, মামা মুক্তিযোদ্ধা কামরুল ইসলাম ঠান্ডু এবং সাবেক এমপি মরহুম আব্দুল কুদ্দুসের স্ত্রী রওশন আরা মিলে একত্রে তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা মৌজায় এক একর জমি ক্রয় করেন। এর মধ্যে তার ও তার স্বামীর ৪৫ শতক জমি রয়েছে। কিছুদিন আগে চেয়ারম্যান মিলন ও তার লোকজন রাতের অন্ধকারে ৩৩ শতক জমিতে জোরপূর্বক দোকান ঘর নির্মাণ ও শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টার নির্মাণ কাজ শুরু করেন। আমাদের আবেদনের পর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত গত ২৫ মে নালিশি জমিতে ১৪৪ ধারা করেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে চেয়ারম্যান ওই জমিতে পরিবহন কাউন্টারের সাইনবোর্ড স্থাপনসহ অবকাঠামো নির্মাণ কাজ অব্যাহত রাখেন। তিনি বলেন, চেয়ারম্যান মিলন জমিতে থাকা আমাদের মালিকানার সাইনবোর্ড না রাখার এবং ৫০ বছরেও আমরা জমির দখল নিতে পারব না বলে প্রকাশ্যে বলে বেড়াচ্ছেন । সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধা কামরুল ইসলাম ঠান্ডু অভিযোগ করেন, বাংলাবান্ধায় আমার ২০ শতক জমি চেয়ারম্যান মিলন ও তার লোকজন দখল করে রেখেছে। জমির পাশে গেলেই তার লোকজন মারতে আসে। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, আমার প্রয়াত বাবা কমরুদ্দীন আহমেদ ও বড় ভাই আব্দুল কুদ্দুস পঞ্চগড়ের সংসদ সদস্য ছিলেন। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা। আমাদের মত লোকের জমিও চেয়ারম্যান মিলন জবরদখল করার সাহস পেলে সাধারণ মানুষদের কি হবে? সংবাদ সম্মেলনে বাংলাবান্ধার পাথর ব্যবসায়ী আব্দুল হামিদ অভিযোগ করেন, বাংলাবান্ধা মৌজায় আমার ক্রয়কৃত ৬৫ শতক জমিতে আমার পাথরের সাইট, পাথর ভাঙ্গা মেশিনসহ বাড়িঘর রয়েছে। গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর ইউপি চেয়ারম্যান মিলন তার লোকজিন নিয়ে এসে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শণ করে ৫ লাখ টাকা চাঁদা নেন। একই সঙ্গে প্রতিমাসে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এই চাঁদা না দেয়ায় গত ১৫ মে চেয়ারম্যানের নির্দেশে তার লোকজন আমার ম্যানেজারের ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। এ ঘটনায় তেঁতুলিয়া থানায় মামলা করতে গেলে তারা আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন। গত ১৯ মে ইউপি চেয়ারম্যান মিলনকে ও তার ৬ জন সহযোগির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করি। আদালতের নির্দেশে মামলাটি থানা রেকর্ড করলেও আসামীদের গ্রেফতার করছেনা। ইউপি চেয়ারম্যানসহ অন্যরা প্রকাশ্যে চলাফেরা করছেন। এ নিয়ে বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান কুদরত-ই-খুদা মিলন বলেন, ১৪৪ ধারা জারির আগেই বায়নামাসূত্রে মালিক হয়ে আমি ওই জমিতে কাউন্টার নির্মানসহ অন্যান্য কাজ করেছি। রা¯œাদের জমি তাদের দখলেই আছে। হামিদের কাছে আমি কোন চাঁদা নেইনি বা চাইনি। ১৫ মে আমি গ্রাম আদালতের একটি প্রশিক্ষণে ছিলাম। প্রকৃতপক্ষে জমির বৈধ মালিক না হওয়ায় সমঝোতার মাধ্যমে ক্ষতিপূরণ পাবার আশায় সে এসব কাজ করেছে। এ নিয়ে কথা বললে তেঁতুলিয়া মডেল থানার ওসি জহুরুল ইসলাম বলেন, হামিদের অভিযোগ সত্য নয়। আদালতের নির্দেশের পরই মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। #





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST