ঘোষনা:
শিরোনাম :
সাতক্ষীরায় প্রেমিকার বাড়ীতে নির্মম নির্যাতনের শিকার টেক্সটাইলস ইঞ্জিনিয়ার রংপুরে ক্যামেরায় কথা বলছে, গ্রামীন জনপদের ফরিদপুরে বাস পিক-আপ মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১২, আশঙ্কাজনক ৩ পহেলা বৈশাখে বর্ণিল উৎসবে মেতেছে নীলফামারী সাতক্ষীরায় ভিডিও কলে রেখে ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে বিউটিশিয়ানের আত্মহত্যা নীলফামারীতে ঘোড়ার প্রতি পাকে,পরিবারে জীবনের গল্পটা কস্টের নীলফামারীতে কর্মসংস্থান কর্মসূচি প্রকল্পের কাজের উদ্বোধন ঈদে বাড়ি ফেরা হলো না, শিশু সন্তান সহ পরিবারের  ঈদে ৫ দিন বন্ধের পরে, সাতক্ষীরা স্থলবন্দরে আমদানী-রপ্তানী শুরু, কর্মচাঞ্চল্য বাগেরহাটে পুকুরে স্যাটেলাইট কুমির উদ্ধার, অবমুক্ত সুন্দরবনে
নীলফামারীতে সরকারী বিদ্যালয়ের জমি দখল করে প্রাচীর নির্মাণ করেন অন্য স্কুলের শিক্ষক

নীলফামারীতে সরকারী বিদ্যালয়ের জমি দখল করে প্রাচীর নির্মাণ করেন অন্য স্কুলের শিক্ষক

মোঃ হারুন উর রশিদ,স্টাফ রিপোর্টার,

নীলফামারীতে প্রধান শিক্ষকের নিরবতায় জানকীনাথ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে জমি দখল করে সেফটি ট্যাংকির উপর দিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণে বাঁধা দিলে তা উপেক্ষা করে ওই ওয়াল নির্মাণ করা হয়। ঘটনার সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাহেদা বানু উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দায় সাড়া মৌখিক অভিযোগ করে বিষয়টিকে এড়িয়ে যান।

সরেজমিনে গেলে জানা যায়, নীলফামারী পৌরসভার মাধারমোড় এলাকায় অবস্থিত জানকীনাথ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নামে রেকর্ডিয় ১৪ শতক জমি রয়েছে। নথিসূচী রেজিষ্ট্রার অনুযায়ী নীলফামারী টাউন মৌজার ৪৫৭৫ দাগে ১৪ শতক জমি বিদ্যালয়ের নামে রেজিস্ট্রি দলিল আছে। কুচক্রী মহলের একটি পক্ষ মৃত রায়হানের স্ত্রী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোছাঃ মেরীনা বেগম শুক্রবার ওই জমি নিজেদের দাবি করে বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু করেন।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ বলেন, অভিযুক্তরা অবৈধভাবে বিদ্যালয়ের জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করছেন।

অভিযুক্ত মেরীনা বেগম বলেন, আমরা আমাদের জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করেছি। জমি পরিমাপের পর স্কুল কর্তৃপক্ষ পেলে আমরা দেওয়াল ভেঙ্গে ফেলবো।

জানতে চাইলে জানকীনাথ সরকারী প্রাথমিন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাহেদা বানু মৌখিক অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, প্রতিষ্ঠানের সভাপতি প্রাচীর নির্মানে বাঁধা দিলেও তারা শোনেননি। আমি লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি গ্রহণ করছি।

এ ব্যাপারে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নবেজ উদ্দিন সরকার বলেন, সরকারি সম্পত্তিতে কারো ব্যক্তিগত স্থাপনা নির্মাণের কোন এখতিয়ার নেই। খবর পেয়ে আমি নিজেই সরেজমিন পরিদর্শন করি এবং ঘটনার সত্যতা পাই। কাজ বন্ধ করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST