ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারী চৌরঙ্গীতে আগুন, দোকান ভস্মীভূত নীলফামারী উত্তরণ নার্সিং এন্ড মিডওয়াইফারি ইনস্টিটিউটের আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত সাতক্ষীরায় ২০ মেট্রিক টন অপরিপক্ক আম জব্দের পর তা বিনষ্ট নীলফামারী সদর উপজলোর মনোনয়ন যাচাই শেষ, এক চেয়ারম্যান প্রার্থির মনোনয়ন অবৈধ নীলফামারীতে মহান মে দিবস পালিত নীলফামারীতে গচ্ছিত জামানত ও পি.এফ এর টাকা উদ্ধারের দাবীতে প্রোণ অফিস ঘেরাও। নীলফামারীতে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ। নীলফামারী জলঢাকার পৌরসভায় নোভা বিজয়ী নীলফামারীর জলঢাকা উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থির পক্ষে প্রচারণা, এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন। নীলফামারীতে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে সাংবািদকের নামে থানায় মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা
নাটোরে সাময়িক বরখাস্তে থাকার পরও স্কুলের নিয়মিত হাজিরা খাতায় সই ।

নাটোরে সাময়িক বরখাস্তে থাকার পরও স্কুলের নিয়মিত হাজিরা খাতায় সই ।

অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল কালাম। ছবি: গ্রাম পোষ্ট ।

নাটোর প্রতিনিধি ,

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার গফুরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে গ্রেফতার শিক্ষক আবুল কালাম জামিনে মুক্তি পেয়ে সাময়িক বরখাস্তে থাকার পরও স্কুলের নিয়মিত হাজিরা খাতায় সই করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগপত্র এবং সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা না হলেও অদৃশ্য কারণে স্কুলের হাজিরা খাতায় সই করে

স্থানীয়দের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষকের ভাই ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক হওয়ায় তার যোগসাজসে আবুল কালাম হাজিরা খাতায় অবৈধভাবে সই করছেন।

অভিভাবকদের দাবি, শিক্ষক আবুল কালাম একজন অভিযুক্ত শিক্ষক এবং তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়া স্কুল কর্তৃপক্ষও বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করেননি। এ অবস্থায় অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল কালাম কিভাবে স্কুলের হাজিরা খাতায় সই করেন। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তারা।

প্রধান শিক্ষক আবু সায়েম বলেন, আইনি জটিলতা সম্পর্কে ধারণা না থাকায় দু’দিন তার সই নেওয়া হয়। পরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের সঙ্গে যোগাযোগ করার পর তার সই আর নেওয়া হচ্ছে না। সেই শিক্ষকের করা সই ফ্লুইড দিয়ে মুছে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আহাদ আলী বলেন, আইনি জটিলতা সম্পর্কে স্কুল কমিটির সভাপতিকে জানানোর পর ওই শিক্ষককে হাজিরা খাতায় সই করতে দেওয়া হচ্ছে না।

বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রিয়াংকা দেবী পাল বলেন, সদ্য যোগদান করায় বিষয়টি আমার নজরে নেই। তবে বিষয়টি খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২০ এপ্রিল ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনে ওই ছাত্রীর বাবার দায়ের করা মামলায় শিক্ষক আবুল কালামকে পুলিশ গ্রেফতার করে পুরিশ। পরে ম্যানেজিং কমিটি তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST