ঘোষনা:
শিরোনাম :
প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সাফল্যের সাথে কাজ করছে ডোমার ভিত্তি বীজআলু উৎপাদন খামার। সৈয়দপুরে সরকার নির্ধারিত দামের দ্বিগুণ দরে বিক্রি হচ্ছে আলু পেঁয়াজ সৈয়দপুরে পুলিশের ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠিত নীলফামারীতে জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের মানববন্ধন অভিযোগ সত্ত্বেও নির্বাচনী ফল মেনে নিলেন প্রার্থীরা নীলফামারীতে শিক্ষার্থীদের শব্দ সচেতনতামুলক প্রশিক্ষণ হলুদ সাংবাদিকতা রোধে তালিকা করা হচ্ছে; প্রেস কাউন্সিল চেয়ারম্যান নীলফামারীতে সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা ডিউটি পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার নীলফামারীতে ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন ও অর্থদন্ড অবরোধকালে চট্টগ্রাম সিটি গেট এলাকায় গাড়ি ভাংচুর, সড়কে টায়ার পুড়িয়ে বিক্ষোভ, আটক ১০
নীলফামারীতে বহিষ্কৃত নেতার ঈদ শুভেচ্ছা বিলবোর্ড

নীলফামারীতে বহিষ্কৃত নেতার ঈদ শুভেচ্ছা বিলবোর্ড

স্টাফ রিপোর্টার,

নীলফামারীতে সরকারি বিলবোর্ড দখল করে চলছে ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামির প্রচারণা। বাংলাদেশ শিশু একাডেমি নীলফামারী জেলার সরকারি বিলবোর্ডে হরহামেশাই দেখা যায় একাধিক মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী সদ্য বহিষ্কৃত জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আরিফ হোসেনের ব্যানার। সরকারি নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে সরকারি বিলবোর্ডকে ব্যক্তিগত বিলবোর্ড বানিয়েছেন সে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জেলা শিল্পকলা একাডেমির বিপরীতে অবস্থিত শিশু একাডেমির সরকারি বিলবোর্ডে তার ব্যানার দেখা যায়। এ বিষয়ে জেলা শিশু অফিসারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান তার অফিস থেকে বিলবোর্ড ব্যবহারের কোনো প্রকার অনুমতি দেয়া হয়নি এবং বার বার বলার পরেও তিনি ব্যানার নামিয়ে নিতে বার্থ্য হন।
উল্লেখ্য আরিফ হোসেন জেলা সদরের শাহীপাড়ার বাসিন্দা  আব্দুল জব্বারের পুত্র। জেলা ছাত্রলীগের পদ ব্যবহার করে দীর্ঘদিন থেকে চাঁদাবাজি অপহরণ সহ নানান অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। বিষয়টি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নজরে আসলে চলতি মাসের ১০ তারিখ তাকে জেলা কমিটির সহ-সভাপতি পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। গত ২৭ মার্চ চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় আব্দুর রাজ্জাক নামক এক ব্যক্তিকে নীলফামারী জেলা জজ আদালত থেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করে আরিফ হোসেন। পরবর্তীতে জেলা জুড়ে ব্যাপক অভিযান চালিয়ে অপহৃত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে পুলিশ। এই বিষয়ে নীলফামারী সদর থানায় ২৬/৭৫ নম্বরে একটি মামলা দায়ের হয়। এছাড়াও একাধিক মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামি সে। জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের ছবি সম্মিলিত ব্যানার টাঙানো হলেও এই বিষয়ে কেউ ই অবগত নন বলে জানান তাঁরা। এই বিষয়ে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মমতাজুল হকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিঁনি জানান, আরিফ হোসেন কেনো তার ছবি সম্মিলিত ব্যানার বিনা অনুমতিতে সরকারি বিলবোর্ডে টাঙিয়েছে এ বিষয়ে তিঁনি অবগত নন। আরিফ হোসেন সংগঠনের কেউ নয় মর্মে তিঁনি জানান তার কোনো অপকর্মের দায় সংগঠন নেবে না। এ বিষয়ে আরিফ হোসেনের সাথে মুঠোফোনে (০১৩১৫২৩৩৩৯০) যোগাযোগ করার চেস্টা করা হলে তার ফোন নম্বরটি বন্দ পাওয়া  যায়।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST