ঘোষনা:
শিরোনাম :
ডিমলায় সরকারী সেবা জনগনের দোরগোড়ায় দিতে চান ইউএনও উম্মে সালমা নীলফামারীতে পবিত্র ঈদুল আযহায় জেলা পুলিশের উৎসব সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আত্মসমর্পনকারী বনদস্যুর মাঝে ঈদ উপহার সাতক্ষীরার দুটি উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের চাবী ও দলিল দিয়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা নীলফামারীতে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও জমির মালিকানা বহালে সংবাদ সম্মেলন মিথ্যা প্রলোভনে পাহাড়ের নারীদের পাচার করছে একটি সংবদ্ধ চক্র সাতক্ষীরায় ভাঙান মাছ চাষ পদ্ধতি ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা গ্রামীণব্যাংকের সেবার মান বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি, নীলফামারীতে কোরবানির জন্য প্রস্তুত ২ লাখ ৭৬ হাজার ২০১টি পশু নীলফামারীতে প্রযুক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে নারীদের ছয় মাস ব্যাপি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন
নীলফামারীতে প্রযুক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে নারীদের ছয় মাস ব্যাপি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন

নীলফামারীতে প্রযুক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে নারীদের ছয় মাস ব্যাপি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন

মোঃ হারুন উর রশিদ, স্টাফ রিপোর্টার,

নীলফামারীতে নারীদের প্রযুক্তিগতভাবে দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে হার পাওয়ার প্রকল্পের আওতায় ছয় মাস ব্যাপি “প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন” বিষয়ক প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৬ জুন/২৪) দুপুরে সদর উপজেলার চাঁদেরহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এ প্রকল্পের আওতায় ওমেন আইটি সার্ভিস প্রোভাইডার কোর্সের উদ্বোধন করেন সদর আইসিটি অফিসার রতন চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, ঘরে বসেই ফ্রিল্যান্সিং কাজের মাধ্যমে কর্মসংস্থান গড়ে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামকরণ করা ‘হার পাওয়ার’ নামক প্রকল্পের মাধ্যমে সারাদেশে নারীদেরকে প্রযুক্তি দক্ষতা বৃদ্ধিতে কাজ শুরু করছে আইসিটি বিভাগ। এরই ধারাবাহিকতায় এবারে দ্বিতীয় পর্যায়ে চারটি ব্যাচে মোট ৮০ জন নারীকে পাঁচ মাস প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। সেইসাথে মেন্টরশিপ হবে ১ মাস। তাদের প্রত্যেককে যাতায়াত ভাতা, ব্যাগ, ম্যানুয়াল, ল্যাপটপ এবং সনদপত্র দেওয়া হবে।

আইসিটি অফিসার বলেন, এরআগে ১ম পর্যায়ে গ্রাফিক্স ডিজাইন দুইটি ব্যাচে ৪০ জন, ডিজিটাল মার্কেটিং একটি ব্যাচে ২০ জন এবং ওয়েব ডেভলপমেন্ট একটি ব্যাচে ২০ জন নারীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

আরও বক্তব্য রাখেন, চাঁপ্রশিক্ষণ বাস্তবায়নকারী সংস্থা টিম ক্রিয়েটিভ এর প্রশিক্ষক নাজমুল হাসান, দেরহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান, সহকারী শিক্ষক ব্রজেন্দ্রনাথ রায়।

তারা বলেন, আমাদের দেশের নারীরা এখন পিছিয়ে নেই। তারা বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেরা স্বাবলম্বী হচ্ছে, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। তেমনি একটি প্রকল্প হলো হার পাওয়ার প্রকল্প। এটি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের আওতায় পরিচালিত হচ্ছে। এই প্রকল্পের আওতায় আমাদের দেশের নারীরা প্রশিক্ষণ নিয়ে আইটি সেক্টরে দক্ষ হচ্ছে। সেইসাথে বিনামূল্যে ল্যাপটপ পাচ্ছেন তারা।

উপজেলা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষক শিমু আক্তার সাথি, মোঃ শাহিদ হাসান, জুবায়ের আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST