ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারী চৌরঙ্গীতে আগুন, দোকান ভস্মীভূত নীলফামারী উত্তরণ নার্সিং এন্ড মিডওয়াইফারি ইনস্টিটিউটের আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালিত সাতক্ষীরায় ২০ মেট্রিক টন অপরিপক্ক আম জব্দের পর তা বিনষ্ট নীলফামারী সদর উপজলোর মনোনয়ন যাচাই শেষ, এক চেয়ারম্যান প্রার্থির মনোনয়ন অবৈধ নীলফামারীতে মহান মে দিবস পালিত নীলফামারীতে গচ্ছিত জামানত ও পি.এফ এর টাকা উদ্ধারের দাবীতে প্রোণ অফিস ঘেরাও। নীলফামারীতে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ। নীলফামারী জলঢাকার পৌরসভায় নোভা বিজয়ী নীলফামারীর জলঢাকা উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থির পক্ষে প্রচারণা, এমপির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন। নীলফামারীতে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে সাংবািদকের নামে থানায় মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা
কাঁচাবাজারে দাম বেড়ে দ্বিগুণ। সবজির খেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাওয়ায় দাম বেড়ে।

কাঁচাবাজারে দাম বেড়ে দ্বিগুণ। সবজির খেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাওয়ায় দাম বেড়ে।

ঢাকা প্রতিবেদক,
রাজধানীর মোহাম্মদপুরে কৃষি মার্কেট কাঁচাবাজারে এক কেজি কাঁচা মরিচের দাম উঠেছে ১৬০ টাকা। বিক্রেতা মো. সাইদুল জানালেন, এক সপ্তাহ আগেও এই কাঁচা মরিচ ছিল ৬০ টাকা। হঠাৎ লাফিয়ে লাফিয়ে দাম বেড়ে যায়।

মূল্যবৃদ্ধির কারণে ক্রেতাদের এখন আড়াই শ গ্রাম কাঁচা মরিচে ১৫ টাকার বদলে ৪০ টাকা ব্যয় করতে হচ্ছে। বেড়েছে সব ধরনের সবজির দাম। কিছুদিন আগেও যে সবজি ৩০ টাকায় পাওয়া যেত, এখন তা কিনতে ৫০ টাকা লাগছে।

এদিকে কারওয়ান বাজারে রসুনের দাম আরও বেড়েছে। বাড়তির দিকে দারুচিনি ও এলাচির দামও। আদা ও ডিম আগের মতো চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে। অবশ্য কেজিতে ৫ টাকা কমেছে পেঁয়াজের দাম। সব মিলিয়ে সংসারে খরচের চাপ বেড়েছে।

মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট ছাড়াও পশ্চিম আগারগাঁও, কাজীপাড়া, পশ্চিম রাজাবাজার ও কারওয়ান বাজার ঘুরেও সবজির মূল্যবৃদ্ধির চিত্র দেখা যায়। পশ্চিম আগারগাঁওয়ের সবজি বিক্রেতা জয়নাল আবেদীন তাঁর দোকানে দুটি সবজি দেখান, যার কেজি ৫০ টাকার নিচে; কাঁচা পেঁপে ৪০ টাকা ও কুমড়া ৩০ টাকা। তিনি বলেন, বেশির ভাগ সবজি এখন ৬০ টাকা কেজি। বেশি দামের মধ্যে রয়েছে বেগুন ৮০ টাকা, টমেটো ১২০।কাঁচা মরিচ কেজি ১৬০ টাকা ,শসা কেজি ১০০ টাকা ,ডিম ডজন ১১৫ টাকায় বিক্রি দোকানে।  খেত ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় দাম বাড়ছে ।

মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটে সাইদুলের দোকানে এক কেজি দেশি শসা ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছিল। তিনি বলেন, এক সপ্তাহ আগেও ৫০ টাকা ছিল। সে হিসাবে দাম এখন দ্বিগুণ। হঠাৎ সবজির বাজার এত চড়া কেন, জানতে চাইলে তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অতিবৃষ্টি ও বন্যায় সবজির খেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম বেড়ে গেছে।

কৃষি মার্কেটে পদ্মা ব্রয়লার হাউসে এক ডজন (১২টি) ফার্মের মুরগির ডিম ১১৫ টাকা, এক কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৫০ টাকা এবং লেয়ার মুরগি ২২০ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়। একই বাজারে চীনা রসুন ১৬০ টাকা, দেশি রসুন ১৩০ টাকা, চীনা আদা ১৪০ টাকা, থাইল্যান্ডের আদা ১৬০ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৪৫ টাকা ও ভারতীয় বড় পেঁয়াজ ৩৫ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়।

কোনো কিছুর দাম কমা-বাড়ার প্রথম প্রভাব পড়ে কারওয়ান বাজারে। সেখানে কয়েকটি দোকানে চীনা রসুন ১৭০-১৮০ টাকা দাম চাইতে দেখা যায়, যা আগের সপ্তাহের চেয়ে প্রায় ২০ টাকা বেশি। জানতে চাইলে রসুন আমদানিকারক আবদুল মাজেদ বলেন, তিন-চার দিন আগে পাইকারি বাজারে রসুনের দর কেজিপ্রতি ১৫৫ টাকায় উঠেছিল। গতকাল তা ১৪৭ টাকায় নেমেছে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST