ঘোষনা:
শিরোনাম :
ডিমলায় তিস্তার চরে ভুট্টার বাম্পার ফলন। সাতক্ষীরায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মেডিকেল হাসপাতালে নারীসহ দুই জনের মৃত্যু। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপজেলা শাখা গঠনের আলোচনা সভা । নীলফামারীতে চাঁদা দিতে না পারায়,ঘরে অগ্নিসংযোগ জোড়পূর্বক মাছ চুরি। সৈয়দপুরের তিন শিক্ষার্থীর ভর্তি অনিশ্চিত মেডিকেল কলেজে । করোনা আক্রান্ত জননেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন অনেকটা সুস্থ্য বোধ করছেন। লকডাউনে ১০টা -০১ টা পর্যস্ত খোলা থাকবে ব্যাংক সেবা। চাঁদ দেখা গেছে, বুধবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু। শঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই, সরকার সবসময় পাশে থাকবে;প্রধানমন্ত্রী। সিলেটে দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের ৫ ক্রিকেটার করোনা শনাক্ত।
দিনাজপুর কলেজিয়েট গালস্ স্কুল এন্ড কলেজ বিল্ডিং এর নাম করণ “মোহাম্মদ আলী চৌধুরী” বিল্ডিং করার দাবী গণ-মানুষের

দিনাজপুর কলেজিয়েট গালস্ স্কুল এন্ড কলেজ বিল্ডিং এর নাম করণ “মোহাম্মদ আলী চৌধুরী” বিল্ডিং করার দাবী গণ-মানুষের

 

দিনাজপুর ॥
দিনাজপুরে লৌহ মানব ও ব্রীজ মাস্টার বলে অবহিত মানুষটি প্রত্যান্ত অঞ্চলের মানুষের জন্য ব্যাপক উন্নয়ন করায় তার ফেসবুক আইডি ভাইরাল। তিনি দিনাজপুরের কৃতি সন্তান মোহাম্মদ আলী চৌধুরী। গত কয়েক দিনে তাঁর সমাজসেবÍ বিভিন্ন সংবাদগুলি পাঠকেরা লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করেছে লক্ষাধিক! মোহাম্মদ আলী চৌধুরী ওরফে বাদশা চৌধুরী তিনি জনপ্রতিনিধি না হয়েও বিশেষ করে দিনাজপুর জেলা ও কয়েকটি উপজেলায় শিক্ষা এবং জনসাধারণের জন্য তাঁর সহযোগীতায় যে ব্রীজগুলি নির্মাণ হয়েছে তা মোহাম্মদ আলী চৌধুরীর অসাধারণ প্রচেষ্টায়। সর্বজন স্বীকৃত এই সাদা মনের মানুষটি জীবন সায়াহ্নে এসেও এক চুলও সমাজ সেবা ছাড়েননি। তিনি অবিরত মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্রীজ, বিদ্যুৎ, বাঁধ, রাস্তা-ঘাট সম্প্রসারণ সহ উল্লেখযোগ্য অবদান তাঁর।
বিশেষ করে ঐহিত্যবাহী বিদ্যাপীঠ দিনাজপুর কলেজিয়েট গালস্ স্কুল এন্ড কলেজের অন্যান্য বিল্ডিংসহ ৪তলা কলেজ ভবন তার সহযোগিতায় নির্মাণ করা সম্ভব হয়েছে। প্রসঙ্গক্রমে, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা বরাবর ২৫/০৯/২০০৭ ইং তারিখে কলেজিয়েট গালস্ স্কুল এন্ড কলেজের জন্য যে ভবন নির্মানের লিখিত আবেদন তিনি করেছিলেন, সে আবেদনে মোহাম্মদ আলী চৌধুরী দিনাজপুর জেলাবাসীর পক্ষে এই আবেদনে স্বাক্ষর দান করেছিলেন। যে কারনে এই বিল্ডিংটি জেলাবাসীরও সম্পদ বটে। অপরদিকে ফুলবাড়ি সরকারি কলেজে অনার্স- কোর্স তার সহযোগিতায় চালু হয়েছে। এ জন্য তিনি ফেসবুকে এক পরিচিতি মুখ। জননন্দ্রিত এই সমাজসেবক ব্যাক্তি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী যেখানে তিনি যান তার সাথে অনেকে মোবাইল ফোনে সেলফি তুলতে দেখা গেছে।
মোহাম্মদ আলী চৌধুরীর সাথে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া প্রসঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি আবেগ আপ্লুত হয়ে বলেন, ফেসবুকে ভাইরাল কি তিনি জানেন না। তবে তিনি জানেন মানুষ তাঁকে ভালোবাসে তার মহৎ কাজের জন্য। তাঁর সহধর্মীনী জাকিয়া চৌধুরী তার সকল কর্মে তাকে সহযোগীতা এবং উৎসাহ দান করেছেন। বাকী জীবনটাও সমাজসেবা করে কাটিয়ে দিতে চায়। সুধীমহল মনে করছেন এই সাদা মনের মানুষটির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি শেষ বয়সে পুরস্কৃত করতেন তাহলে তাঁর সমাজসেবার মূল্যটি যথার্থ সার্থকতা পেত।
তার ফেসবুক আইডিতে কয়েকজন কমেন্ট করেন এই যে, এই জন্যই তো তিনি আপামর জনসাধারণের ভালোবাসায় লৌহ মানব ও ব্রীজ মাস্টার উপাধিত ভূষিত হয়েছেন। মহান আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করছি, তিনি যেন তাকে হায়াতে তৈয়বা দান করেন, আমিন। অপর জন কমেন্ট করেন, দিনাজপুর জেলার স্বনামধন্য পরিবারের জনদরদি সমাজসেবী, উন্নয়নের কান্ডারী ও দিনাজপুর কলেজিয়েট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নের নিঃস্বার্থ রূপকার ও বাস্তবায়নের অকৃত্রিম সেচ্ছাসেবী অগ্রনায়ক, জননন্দিত জনাব মোহাম্মদ আলী চৌধুরীরই মূলতঃ অনন্য অবদান। দিনাজপুরবাসী তজ্জন্য চিরকৃতজ্ঞ। আল্লাহ, তাকে তার কর্মের উন্নত প্রতিদান ও কর্মমূখর দীর্ঘায়ু প্রদান করুন। আমিন। এদিকে আরো একজন কমেন্ট করেন। লৌহমানব মোহাম্মদ আলী চৌধুরী এক বিস্ময়। প্রসঙ্গত, তিনি এখন পর্যন্ত যা করেছেন সত্যিই অতুলনীয়। আমার মতেও আলোচ্য ভবনটির নাম “মোহাম্মদ আলী চৌধুরী” করাটা যৌক্তিক। উনি আমাদের তথা মানুষের জন্য যা কিছু করেছেন তার সামান্য বিনিময় হিসেবে আমরা কি তাকে কিছু দিতে পেরেছি? আসলে তিনি যা করেছেন তার বিনিময়েমূল্য নেই, অপরিশোধযোগ্য। ভবনটির নাম “মোহাম্মদ আলী চৌধুরী” করা হলেও বোধহয় কম হয়ে যায়।

মোঃ আব্দুল আজিম, দিনাজপুর ॥
মোবাঃ ০১৭০১৯১১৪৯৪





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST