ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ডিমলায় গাড়ী চালক শ্রমিকদের মাস্ক পড়তে সচেতনতামুলক মতবিনিময় নীলফামারীতে ট্রাকের চাকায় পিষ্টে,নারী পোশাক কর্মীর মৃত্যু চট্টগ্রামে গনধর্ষণের পর হত্যা, মামলায় ১ জনের মৃত্যুদন্ড চট্টগ্রামে দুদকের মামলায় দুই রাজস্ব কর্মকর্তা কারাগারে নীলফামারীতে শীতের তীব্রতায় দুর্ভোগ,সূর্যের দেখা মিলবেনা সারাদিন বাংলাদেশের অগ্রগতির অদম্য গতি কেউ থামাতে পারবে না : প্রধানমন্ত্রী গভীর রাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত দুই নীলফামারীতে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় শিশু নিহত ডিমলায় ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষন, ধর্ষক আটক
বরিশালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত দুই রোগীর মৃত্যু ।

বরিশালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত দুই রোগীর মৃত্যু ।

বরিশাল প্রতিবেদক,

বরিশালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত দুই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গতকাল সোমবার রাত ও আজ মঙ্গলবার ভোরে দুজনের মৃত্যু হয়। দুজনই ঢাকা থেকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসক।

মৃত দুজন হলেন বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর এলাকার নাসির খানের ছেলে আসলাম খান (২৪) ও পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলার গোসনতারা এলাকার আদম আলীর ছেলে মো. সোহেল (১৮)। আজ সকালে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালে পরিচালক মো. বাকির হোসেন।

বাকির হোসেন বলেন, মৃত আসলাম খান গতকাল রাত সাড়ে নয়টার দিকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ৩ নম্বর ইউনিটে ভর্তি হন এবং দিবাগত রাত তিনটার দিকে মৃত্যুবরণ করেন। অন্যদিকে, সোহেল গতকাল রাত দেড়টার দিকে হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ৩ নম্বর ইউনিটে ভর্তি হন এবং আজ ভোররাত চারটার দিকে মৃত্যুবরণ করেন।

বাকির হোসেন বলেন, দুজনই ঢাকা থেকে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ঢাকায় ডেঙ্গু জ্বর শনাক্ত হওয়ার পরেও চিকিৎসা না নিয়ে তাঁরা বাড়িতে চলে আসেন এবং অবস্থা গুরুতর হওয়ার পর তাঁদের হাসপাতালে আনা হয়।
বরিশাল অঞ্চলে ডেঙ্গুতে মৃত্যুর ঘটনা এটাই প্রথম। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আজ সকাল পর্যন্ত ২৪ জন রোগী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন আছেন। ১৬ জুলাই থেকে আজ পর্যন্ত এই হাসপাতালে মোট ৬৩ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এঁদের মধ্যে ৩৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। ২৪ জন চিকিৎসাধীন আছেন।
অন্যদিকে, হাসপাতালের ওয়ার্ডে শয্যা না পেয়ে অনেক রোগী মেঝে বা বারান্দায় শয্যা পেতে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। বাড়তি রোগীর চাপে ওয়ার্ডগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতেও হিমশিম খাচ্ছেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী ও তাঁদের স্বজনরা অভিযোগ করেন, ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য সরকার সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা ফি নির্ধারণ করে দিলেও বাইরের বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো দেড় থেকে দুই হাজার টাকা পর্যন্ত ফি আদায় করছে।

আসন্ন কোরবানির ঈদ উপলক্ষে কয়েক লাখ লোক রাজধানী থেকে বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলে আসবেন। এমন পরিস্থিতেত ওই সময় ডেঙ্গু পরিস্থিতি ব্যাপক বিস্তার ঘটনার আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকেরা। এ জন্য হাসপাতালগুলোয় আগাম প্রস্তুতির কথাও জানান তাঁরা। একই সঙ্গে ঢাকার সঙ্গে চলাচলকারী লঞ্চ এবং বাসগুলোয় নিয়মিত মশার ওষুধ স্প্রে করার ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার ব্যাপারে অনুরোধ করেছেন তাঁরা।

শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক মো. বাকির হোসেন বলেন, কোরবানির সময় পরিস্থিত যাতে অনুকূলে থাকে, এ জন্য হাসপাতালের চিকিৎসকদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। বেশ কয়েকটি চিকিৎসক দল গঠন করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রচুর স্যালাইন ও ডেঙ্গু শনাক্তকরণ কিট চেয়ে আবেদন করা করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে বলেও জানান তিনি।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST