ঘোষনা:
শিরোনাম :
সাতক্ষীরায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মেডিকেল হাসপাতালে নারীসহ দুই জনের মৃত্যু। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপজেলা শাখা গঠনের আলোচনা সভা । নীলফামারীতে চাঁদা দিতে না পারায়,ঘরে অগ্নিসংযোগ জোড়পূর্বক মাছ চুরি। সৈয়দপুরের তিন শিক্ষার্থীর ভর্তি অনিশ্চিত মেডিকেল কলেজে । করোনা আক্রান্ত জননেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন অনেকটা সুস্থ্য বোধ করছেন। লকডাউনে ১০টা -০১ টা পর্যস্ত খোলা থাকবে ব্যাংক সেবা। চাঁদ দেখা গেছে, বুধবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু। শঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই, সরকার সবসময় পাশে থাকবে;প্রধানমন্ত্রী। সিলেটে দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের ৫ ক্রিকেটার করোনা শনাক্ত। চাঁপাইনবাবগঞ্জ আতাহার বাজার হতে গাঁজাসহ এক মহিলাকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৫।
রাবি ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মারধর ও চাঁদা দাবির অভিযোগ ।

রাবি ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মারধর ও চাঁদা দাবির অভিযোগ ।

 

রাবি প্রতিনিধি ,
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) মতিহার হলের এক শিক্ষার্থীকে হলে উঠিয়ে তার কাছে ৫০০০ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে চোখ বেঁধে মারধর ও ছুরি দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে মোবাইল ফোন ও সোনার চেইন হাতিয়ে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় রবিবার মতিহার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার নাম তারেক আহমেদ খান শান্ত। তিনি শাখা ছাত্রলীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক ও মার্কেটিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। মারধরের শিকার শিক্ষার্থীর নাম আনাস আহমেদ। তিনি ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। বর্তমানে তিনি মতিহার হলের ২১২ নাম্বার কক্ষে থাকেন।

মারধরের শিকার ওই শিক্ষার্থী জানান, ‘কিছুদিন ধরে শান্ত ভাই আমার কাছে ৫০০০ টাকা দাবি করে আসছে। কিন্তু টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় শনিবার দুপুরে আমাকে হলের ২২৩ নম্বর কক্ষে ডেকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে খারাপ ভাষায় গালাগালি ও হুমকি দিতে থাকে। একপর্যায়ে আমার চোখ বেঁধে কয়েকজন মিলে মারতে থাকে। তারা আমার গলার চেইন ও মোবাইল ফোন নিয়ে চলে যায়।

পরে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে গলায় আঘাত করে। তখন আমার চিৎকার শুনে পাশের রুম থেকে কয়েকজন এসে আমার চোখ খুলে দেয়। তারপর আমি আমার বিভাগের বড় ভাইয়ের সহায়তায় বিশ^বিদ্যালয়ের মেডিকেলে আসি।’

মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত শান্ত বলেন, আনাস মতিহার হলের ডাইনিং ম্যানেজারের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছিল। সেই অভিযোগ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতির কাছে জানালে তিনি শাসন করতে বলেছেন। তাই রুমে নিয়ে গিয়ে মারধর করেছি। তবে টাকা দাবি বা সোনার চেইন ও মোবাইল কেড়ে নেওয়ায় বিষয়টি মিথ্যা। ছুরি দিয়ে হত্যাচেষ্টা মিথ্যা ও বানোয়াট বলে জানান তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘মতিহার হল ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মীর সঙ্গে আনাস বেয়াদবি করার কারণে একটু বকাঝকা করেছে আর কি। তাছাড়া এটা কোন বিষয় না। তবে ফোন, চেইন নেওয়া বা চাঁদা দাবির বিষয়টি আমি জানি না।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘বিষয়টি আমি একটি মাধ্যমে শুনেছি কিন্তু মারধরের শিকার ওই শিক্ষার্থী আমাকে এ বিষয়ে কিছুই জানায়নি বা লিখিত কোনো অভিযোগও দেয়নি। আর বিষয়টি শোনার পর আমি হল প্রাধ্যক্ষকে সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলেছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মতিহার হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মুসতাক আহমেদ বলেন, ‘এ বিষয়ে কোন পক্ষই কোনো অভিযোগ দেয়নি। আমি এসআই আব্দুল মোমিন ও বিশ^বিদ্যালয়ের প্রক্টরের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরেছি। অভিযোগ পেলে সত্যতা যাচাই করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। #





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST