ঘোষনা:
শিরোনাম :
সাতক্ষীরায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মেডিকেল হাসপাতালে নারীসহ দুই জনের মৃত্যু। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপজেলা শাখা গঠনের আলোচনা সভা । নীলফামারীতে চাঁদা দিতে না পারায়,ঘরে অগ্নিসংযোগ জোড়পূর্বক মাছ চুরি। সৈয়দপুরের তিন শিক্ষার্থীর ভর্তি অনিশ্চিত মেডিকেল কলেজে । করোনা আক্রান্ত জননেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন অনেকটা সুস্থ্য বোধ করছেন। লকডাউনে ১০টা -০১ টা পর্যস্ত খোলা থাকবে ব্যাংক সেবা। চাঁদ দেখা গেছে, বুধবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু। শঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই, সরকার সবসময় পাশে থাকবে;প্রধানমন্ত্রী। সিলেটে দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের ৫ ক্রিকেটার করোনা শনাক্ত। চাঁপাইনবাবগঞ্জ আতাহার বাজার হতে গাঁজাসহ এক মহিলাকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৫।
এক পুলিশের এসআই নিজের পিস্তল দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করে আত্মহত্যা। শোকের ছায়া ,বন্ধুসহ সহকর্মীদের মাঝে।

এক পুলিশের এসআই নিজের পিস্তল দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করে আত্মহত্যা। শোকের ছায়া ,বন্ধুসহ সহকর্মীদের মাঝে।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি ,
এক পুলিশের এসআই নিজের পিস্তল দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করে আত্মহত্যা করেছেন। এতে শোকের ছায়া পড়েছে তার বন্ধুসহ সহকর্মীদের মাঝে।
কুড়িগ্রামের তিনি পুলিশের এক উপপরিদর্শক (এসআই)। নিজের নামে ইস্যু করা সরকারি পিস্তল দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করেন। বুধবার বিকেল ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত পুলিশ কর্মকর্তার নাম সেলিম জাহাঙ্গীর। তার গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায়। কুড়িগ্রাম সদর পুলিশ ফাঁড়ির হাটিরপাড় এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন তিনি। ওই বাসায় আত্মহত্যা করেন তিনি।
সেলিম জাহাঙ্গীর সদর পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলেন। দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার আবুল কালাম আজাদের একমাত্র সন্তান ছিলেন জাহাঙ্গীর। ২০০৭ সালে এএসআই হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন তিনি। পরে পদোন্নতি পেয়ে এসআই হন। নিহতের পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে সদর পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) কামরুজ্জামান বলেন, বুধবার বিকেলে এসআই জাহাঙ্গীর বাসায় বসে পিস্তল পরিষ্কার করছিলেন। এ সময় হঠাৎ মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করেন তিনি। জাহাঙ্গীরের আট বছর বয়সী ছেলে ছাড়াও ওই সময় বাসায় ছিলেন তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী, বাবা ও মা। তবে প্রাথমিকভাবে তার আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। এ ঘটনায় পুলিশ ফাঁড়িতে তার সহকর্মীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার শাহীনুর রহমান সরদার বলেন, ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। তার মাথার ডান দিকে কানের ওপরে গুলির চিহ্ন রয়েছে। গুলিতেই তার মৃত্যু হয়েছে।
কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মুহিবুল ইসলাম খান জানান, এ ঘটনায় ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান বলেন, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে নিজের মাথায় গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এসআই সেলিম জাহাঙ্গীর। ইতোমধ্যে এ বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে পরে বিস্তারিত জানানো হবে। তদন্তের মাধ্যমে এর কারণ জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST