ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে পুলিশকে ব্যবহার করে জোরপূর্বক অন্যের জমি দখল নীলফামারীতে জোরপূর্বক মসজিদের সভাপতি হওয়ার পায়তারা, মুসল্লীদের মানববন্ধন। ডিমলায় সরকারী সেবা জনগনের দোরগোড়ায় দিতে চান ইউএনও উম্মে সালমা নীলফামারীতে পবিত্র ঈদুল আযহায় জেলা পুলিশের উৎসব সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আত্মসমর্পনকারী বনদস্যুর মাঝে ঈদ উপহার সাতক্ষীরার দুটি উপজেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের চাবী ও দলিল দিয়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা নীলফামারীতে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও জমির মালিকানা বহালে সংবাদ সম্মেলন মিথ্যা প্রলোভনে পাহাড়ের নারীদের পাচার করছে একটি সংবদ্ধ চক্র সাতক্ষীরায় ভাঙান মাছ চাষ পদ্ধতি ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মশালা গ্রামীণব্যাংকের সেবার মান বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি,
তারেক জিয়া বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করতে চেয়েছিলেন বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি শোভন ।

তারেক জিয়া বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করতে চেয়েছিলেন বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি শোভন ।

সিলেট প্রতিবেদক ,
বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবি) শাখা ছাত্রলীগের কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। আজ বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে কর্মী সমাবেশ শুরু হয়। শুরুতেই মিলনায়তনের ভেতরে মঞ্চের ওপরে উঠে দাঁড়ানো, মঞ্চের সামনে দাঁড়ানো, নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বারবার নিজের নেতার নামে স্লোগান দিয়ে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি করে নেতাকর্মীরা। শাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার চেষ্টা করেও বারবার ব্যর্থ হন। কর্মী সমাবেশে উপস্থিত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য দেয়ার সময় হট্টগোল ও বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরির জন্য শাবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সমালোচনা করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, বঙ্গবন্ধু ক্ষুধামুক্ত ও উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়তে যে স্বপ্ন দেখেছিলেন তা মোস্তাক-জিয়া ও খালেদা-তারেকের কারণে বাস্তবায়ন করে যেতে পারেননি। তারেক জিয়া বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করতে চেয়েছিলেন। বাংলাদেশকে একটি উগ্র রাষ্ট্র বানিয়ে নিজের মতো করে পরিচালিত করার চিন্তাভাবনা ছিল তার।
তিনি আরও বলেন, কর্মীরাই ছাত্রলীগের প্রাণ, কর্মী ছাড়া সংগঠনের কোনো অস্তিত্ব নেই। ৫২, ৬৬ ও ৭১ এ ছাত্রলীগের কর্মীরা সবচেয়ে বেশি ত্যাগ স্বীকার করেছেন। তাই ছাত্রলীগের কর্মীদের মতো দেশাত্ববোধ আর কারও নেই। ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত ও দুর্নীতিমুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়ার জন্য সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান ছাত্রলীগ সভাপতি। শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. রুহুল আমীনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, শাহরিয়ার বিদ্যুৎ, মঞ্জুরুল মোর্শেদ, উপ-ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক সালেকুর রহমান শাকিল, উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মীর রঞ্জন, সহ-সম্পাদক ওয়াসিম আকরাম প্রমুখ।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST