ঘোষনা:
শিরোনাম :
ঢাকা সিলেট মহাসড়কে ট্রাকের ধাক্কায় মটর সাইকের আরোহী পুলিশের এস আই নিহত। ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার বিদায়, বরণ সংবর্ধনা । রিসোর্টে নারীকে নিয়ে, মামুনুলের ব্যক্তিগত বিষয়, এ নিয়ে হেফাজতের বক্তব্য নেই। নীলফামারী সৈয়দপুরে বৈশাখ আর ঈদের কেনাকাটায় ব্যাস্ত মানুষ। রাষ্ট্রপতির শোক বার্তা দিয়েছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত রবীন্দ্রসংগীত শিল্পীর মৃত্যুতে। সাতক্ষীরায় ঘাতক সাগর গ্রেপ্তার, ‘২০০ টাকার জন্য বন্ধুকে খুন ’ ঘাতকের স্বীকারোক্তি। সীতাকুণ্ডে পুকুর থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।স্ত্রীকে আটক। চট্টগ্রামে করোনায় প্রাণ গেল এক চিকিৎসকের। কক্সবাজার সৈকতে আরও একটি মৃত তিমি ভেসে এসেছে । সাতক্ষীরায় করোনা মোকাবেলায় জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ।
স্কুলের দপ্তরির বিরুদ্ধে তৃতীয় শ্রেণির মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ।

স্কুলের দপ্তরির বিরুদ্ধে তৃতীয় শ্রেণির মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ।

বগুড়া প্রতিবেদক,
স্কুলের দপ্তরির বিরুদ্ধে তৃতীয় শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে।
বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় মিষ্টি খাওয়ানোর কথা বলে তৃতীয় শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় ওই ফাজিল মাদ্রাসার দপ্তরিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম আলমগীর হোসেন (৪৫)। সংশ্লিষ্ট শিশুর বাবা তাঁর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। ঘটনার সময় স্থানীয়রা তাঁকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছিল।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, আলমগীর ওই শিশু শিক্ষার্থীকে নাতনি ডাকতেন। আজ ক্লাস শেষে সে আলমগীরের বাড়ির পাশ দিয়ে নিজ বাড়ি ফিরছিল। এ সময় আলমগীর তাকে মিষ্টি খাওয়ানোর কথা বলে নিজ ঘরে ডেকে নেন। তখন বাড়িতে তাঁর স্ত্রী-সন্তান ছিল না। আলমগীর ওই শিশুকে নিজ ঘরে ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। তারা শিশুটির মুখে ঘটনার বিবরণ শুনে আলমগীরকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে খবর দেয়। নন্দীগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির বলেন, শিশুটির বাবা আলমগীরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছে। আগামীকাল রোববার তাঁকে আদালতে পাঠানো হবে। শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা হবে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এদিকে ঘটনার বিচার চেয়ে আগামীকাল প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ওই মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বলেন, একজন দুশ্চরিত্র কর্মচারীর লালসার শিকার হয়েছে শিশু শিক্ষার্থী। তাঁর কারণে গোটা মাদ্রাসার ভাবমূর্তি ও সুনাম প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। এ কারণে তাঁর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ ডেকেছে। শিক্ষার্থীদের এই কর্মসূচির সঙ্গে শিক্ষকেরা একাত্মতা ঘোষণা করেছেন।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST