ঘোষনা:
শিরোনাম :
সত্য বলার সৎ সাহসেই গঠিত হবে স্মার্ট বাংলাদেশ: অ্যাড. মমতাজুল শঙ্কামুক্ত নন অভিনেত্রী শারমিন আওয়ামী লীগ শাসনামলে দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর নীলফামারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ক্লাস প্রমোশন না দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন নীলফামারীতে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত ৮ জন নীলফামারীতে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের শীতবস্ত্র বিতরণ কিশোরগঞ্জে বিদায়ী মাঘে শীতের হানা কিশোরগঞ্জে অপহরণের দায়ে পেশ ইমাম আটক-ছাত্রী উদ্ধার বিপদে পুলিশকে পাশে পেয়ে মানুষ যেন স্বস্তি বোধ করে তা নিশ্চিত করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নের বদলে শেখ হাসিনাকে ভোট উপহার দিন: চাঁপাইনবাবগঞ্জে নানক
নওগাঁর রানীনগর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে দুদকের অভিযান, কাউকে আটক করা হয়নি ।

নওগাঁর রানীনগর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে দুদকের অভিযান, কাউকে আটক করা হয়নি ।

নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি ,
সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে দুদকের একটি দল অভিযান পরিচালনা করেছেন কাউকে আটক করা হয়নি তবে কিছু অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে বলেন দুদক কর্মকর্তা। আজ সোমবার বিকেল ৩টার দিকে দুদক রাজশাহীর সহকারী পরিচালক আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে চার কর্মকর্তা এ অভিযান পরিচালনা করেন। প্রায় ২ ঘণ্টা অভিযান শেষে তারা চলে যান।
নওগাঁর রানীনগর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে দুদকের একটি দল অভিযান পরিচালনা করেছেন। বিকেল ৩টার দিকে রানীনগর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে সাব-রেজিস্ট্রার রাশিদা ইয়াসমিন মিলির কক্ষে দুদকের চার কর্মকর্তা প্রবেশ করেন। এরপর সাব-রেজিস্ট্রার কক্ষের দরজা বন্ধ করে দেয়া হয়। দুদক কর্মকর্তারা প্রায় দুই ঘণ্টা অভিযান পরিচালনা করেন। সাব-রেজিস্ট্রি অফিস থেকে দুদক বের হলেও স্থানীয় সাংবাদিকরা বিষয়টা জানতে চাইলে দুদকের কর্মকর্তারা মুখ খুলেননি। এমনকি ছবিও তুলতে দেয়া হয়নি। এ ব্যাপারে রানীনগর সাব-রেজিস্ট্রার রাশিদা ইয়াসমিন মিলির সঙ্গে সাংবাদিকরা তার অফিসে কথা বলতে গেলে তিনি কোনো তথ্য না দিয়ে অসাদাচারণ করেন। রানীনগর দলিল লেখক সমিতির সভাপতি হাফিজুর রহমান বাচ্চু বলেন, দুদক সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে অভিযান পরিচালনা করে অফিসের ভেতরে বিভিন্ন কাগজপত্র ঘেটে দেখেন। তবে কোনো কিছু তারা পায়নি। এরপর দুদক আমাকে জিজ্ঞাসা করেন, জমি রেজিস্ট্রির সময় দলিল প্রতি এক হাজার টাকা করে আমরা দেই কীনা, আমি বলেছি এ ধরনের কোনো টাকা নেয়া হয় না আমাদের কাছ থেকে।
তিনি আরও বলেন, এ সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে পাঁচ জুটি স্বামী-স্ত্রী চাকরি করেন। স্ত্রীরা নকলনবিশ (কপিস্ট) এবং স্বামীরা দলিল লেখক। যা মোটেও উচিত না। এতে অনিয়ম দুর্নীতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আমরা উদ্যোগ নিয়েও এটা দূর করতে পারিনি। এটা নিয়ে শিগগিরই পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত বলে মনে করেন তিনি। দুদক রাজশাহীর সহকারী পরিচালক আলমগীর হোসেন বলেন, বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। জমি রেজিস্ট্রিতে টাকা বেশি নেয়া হয়। স্বামী-স্ত্রী জুটি বেধে চাকরি করছেন। এসব অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে কাউকে আটক করা হয়নি।
উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন থেকে রানীনগর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের অনিয়ম ও দুর্নীতি নিয়ে বিভিন্ন সময় জাতীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকায় ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। স্থানীয়রা মনে করছেন, এ অনিয়ম ও দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় দুদক কর্মকর্তারা অভিযান পরিচালনা করেন।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST