ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন। খুলনায় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় অর্থদণ্ড ও কারাদণ্ড প্রদান । জলঢাকায় হরিজন পল্লীতে তুরিন আফরোজ কিশোরগঞ্জে ভাতাভোগীদের টাকা হাতিয়েছে প্রতারক চক্রটি জলঢাকায় আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর বৃক্ষ রোপন ও চারাগাছ বিতরণ নীলফামারীতে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বৃক্ষরোপন করেছে আনসার ওভিডিপি। সৈয়দপুরে রেলের তদন্ত প্রতিবেদন,নিজেকে বাঁচাতে উপজেলা চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন । পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে করোনা আক্রান্ত মাদ্রাসা শিক্ষিকার মৃত্যু। বাংলাদেশ স্কাউটস এর স্ট্রাটেজিক প্ল্যান ও গ্রোথ মূল্যায়ন ওয়ার্কশপ বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ১, আহত ২
ভারতকে পানি দিলে আমাদের দেশের কোন ক্ষতি হবেনা বলেছেন,কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

ভারতকে পানি দিলে আমাদের দেশের কোন ক্ষতি হবেনা বলেছেন,কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) উপজেলা প্রতিনিধি ,
ভারতকে পানি দলে আমাদের দেশের কোন ক্ষতি হবেনা বলেছেন,কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। আজ সোমবার দিবাগত রাতে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার নিজ বাড়ির পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।
কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ফেনী নদীতে পানি থাকলে তা ভারতকে দিলে আমাদের দেশের ক্ষতির কিছু নেই। আমাদের দেশের বিশেষজ্ঞরা এ ব্যাপারে অভিমত দিয়েছেন। মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি চুক্তিতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার আরও বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখতে পারে। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকার ইচ্ছা করলে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে পারে। তিনি বলেন, আমাদের ও পশ্চিমবঙ্গের সংস্কৃতি, সামাজিক রীতিনীতি একই। তাদের সঙ্গে মূলত ধর্ম ছাড়া আমাদের কোনো পার্থক্য নেই। পুরো ভারতবর্ষ দিতে চাচ্ছে, শুধু পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী চাচ্ছেন না। এটা আমাদের জন্য খুবই দুঃখজনক। আমরা আশা করি, শিগগিরই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবেন।
আওয়ামী লীগের এই প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, যে আদর্শ এবং উদ্দেশ্য নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সেই আদর্শ থেকে একটুও বিচ্যুত হয়নি। আওয়ামী লীগ সবসময় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করে। বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষের সহাবস্থানের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকার সেই সম্প্রীতি ধরে রেখেছে। এ সময় টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন, টাঙ্গাইল-৮ আসনের সাবেক সাংসদ অনুপম শাজাহান জয়, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাজাহান আনসারী, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মালেক, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মঈনুল হক, মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সায়েদুর রহমান, কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST