ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ে লন্ডভন্ড কয়েকটি গ্রাম সাতক্ষীরায় শিশু ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ, অভিযুক্ত দুই শিশুসহ এক মা আটক অস্তিত্ব রক্ষা করতে হলে বিএনপিকে নির্বাচনে যেতে হবে,তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী কিশোরগঞ্জে ১ দোকান আগুনে পুড়ে ছাই মুন্সীগঞ্জে সয়াবিন তেল জব্দ তিনটি দোকানে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা এশিয়া কাপ আর্চারির স্টেজ টুয়ের ফাইনালে বাংলাদেশের ৪টা রুপা ও ৪টা ব্রোঞ্জপদক ব্যর্থতার দায়ে মির্জা ফখরুলসহ বিএনপি’র টপ টু বটম নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত;সেতু মন্ত্রী ডোমারে ইউপি চেয়ারম্যানদের সন্মননা স্মারক প্রদান নীলফামারীতে সম্পত্তির লোভে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গৃহবধুকে গুরুতর জখম, থানায় এজাহার কিশোরগঞ্জে গোডাউনে সয়াবিন তেল মজুদ
ভারতের হামলায় পাকিস্তানের ১০ সেনা নিহত ।

ভারতের হামলায় পাকিস্তানের ১০ সেনা নিহত ।

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ,

ভারতীয় ভূখণ্ডে সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশে সহায়তা করছে পাক সেনাবাহিনী। প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনে পাক অধ্যুষিত কাশ্মীরে হামলা চালিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। রোববার সীমান্তে কয়েক দফা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে দু’দেশের সেনাবাহিনী। ভারতের তরফ থেকে বলা হচ্ছে, তারা পাক অধ্যুষিত কাশ্মীরে সন্ত্রাসী ঘাঁটি ও চৌকিতে হামলা চালিয়েছে।এতে সন্ত্রাসীদের তিনটি ক্যাম্প ধ্বংসে হয়েছে এবং ছয় থেকে ১০ জন পাক সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন বলে ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রধান বিপিন রাওয়াত দাবি করেছেন।একটি সূত্র জানিয়েছে, কুপওয়ারা জেলার তাংঘর সেক্টরের বিপরীত পাশে অবস্থিত পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নিলাম উপত্যকায় সন্ত্রাসীদের বেশ কিছু ঘাঁটি লক্ষ্য করে আর্টিলারি গোলাবারুদ দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে। ভারতে সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশে সহায়তা করায় পাক সেনাবাহিনীকে জবাব দেয়া হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।জেনারেল রাওয়াতের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, পাকিস্তানের ৬ থেকে ১০ জন সেনা নিহত হয়েছে এবং সন্ত্রাসীদের তিনটি ক্যাম্প ধ্বংস হয়েছে। এছাড়া ৬ থেকে ১০ জন সন্ত্রাসীও নিহত হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।রোববার সকালের দিকে ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের কুপওয়ারা সীমান্তে অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘন করে পাক সেনাবাহিনীর ছোড়া গুলিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর দুই সদস্য ও এক বেসামরিক নাগরিক নিহত হওয়ার পর এই হামলা চালায় ভারত।এএনআই বলছে, আজাদ কাশ্মীর থেকে ভারতীয় ভূখণ্ডে সন্ত্রাসীরা অনুপ্রবেশের সক্রিয় চেষ্টা করেছে। পরে ভারতীয় সেনা সদস্যরা পাক অধিকৃত কাশ্মীরের তাঙধর সেক্টরে আর্টিলারি গোলাবারুদ নিক্ষেপ শুরু করে।এদিকে, ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার হিরানগর সেক্টরের মানিয়ারি গ্রামে অস্ত্রবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে হামলা চালিয়েছে পাক রেঞ্জার্স। বেসামরিক এলাকা লক্ষ্য করে ভারী অস্ত্র দিয়ে গুলি এবং মর্টার শেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। পাক সেনাবাহিনীর ওই হামলায় মানিয়ারি গ্রামে অন্তত তিনজন দগ্ধ হয়েছেন।জেনারেল রাওয়াত বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে, পিরপাঞ্জল এলাকায় কিছু সন্ত্রাসী ক্যাম্প সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সেখানে সন্ত্রাসীরা আশ্রয় নিয়েছে। তারা সেখান থেকে ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছিল।পাকিস্তান প্রথম যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গোলাগুলি করায় ভারতও এর জবাব দিয়েছি বলে উল্লেখ করেন তিনি। তবে সন্ত্রাসীরা অনুপ্রবেশের আগেই সেখানে হামলা চালানো হয়।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST