ঘোষনা:
শিরোনাম :
ডোমারে সন্ত্রাসী হামলার স্বীকার প্রতিবন্ধী পরিবার, মামলা তুলে নেওয়ার হুমকী প্রদান নীলফামারীতে জাতীয় দক্ষতামান বেসিক ট্রেড কোর্সকে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে চলমান রাখার দাবীতে মানববন্ধন। নীলফামারীতে দূর্গা পুজা মন্ডপ পরিদর্শন করেছেন রংপুর বিভাগীয় কমিশনার। ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার নবীনগে দেশের অন্যতম মূর্তি তৈরী ও বিকিকিনি নীলফামারী সার্কেল অফিস এবং পুলিশ সুপার কার্যালয় পরিদর্শন নীলফামারী কমিটির পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক খাগড়াছড়িতে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষনের অভিযোগে ২ যুবক আটক নীলফামারীতে পুলিশ সুপারের সাথে হিন্দু ধর্মালম্বীদের মতবিনিময় নীলফামারীতে সামাজিক-সম্প্রীতি সমাবেশ হয়েছে। ডিমলায় কৃষক সমাবেশ ও আলোচনা সভা
দিনাজপুরে ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে খ্রীষ্টিয় ধর্মীয় তীর্থ যাত্রা অনুষ্ঠিত ।

দিনাজপুরে ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে খ্রীষ্টিয় ধর্মীয় তীর্থ যাত্রা অনুষ্ঠিত ।

দিনাজপুর প্রতিনিধি ,
দিনাজপুর সদর উপজেলাধীন রাজারামপুরস্থ খ্রীষ্টিয় ধর্মীয় মন্দির প্রাঙ্গণে মা’ মরিয়ম এর প্রতি শ্রদ্ধা ও সন্মান বৃদ্ধির উদ্দেশে শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) দিনব্যাপী তীর্থ যাত্রা’র মধ্য দিয়ে খ্রীষ্টিয় ধর্মাবলম্বিদের অংশগ্রহণে বিশেষ প্রার্থনার মাধ্যমে তীর্থ যাত্রা সম্পন্ন হয়। উক্ত তীর্থ যাত্রায় অংশগ্রহণকারী খ্রীষ্টিয় ধর্মপ্রাণ ভক্তবৃন্দের সুবিধার্থে প্রতি বছর ২টি পর্বে মিশা বা প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে এবং খ্রীষ্টিয় ধর্ম ভক্তদের উপস্থিতি বেশী হওয়ার কারণে ৪টি পর্বে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম পর্ব সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত, দ্বিতীয় পর্ব সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত, ৩য় পর্ব দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত এবং ৪র্থ পর্ব দুপুর ২টা ১৫ মিনিট থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত। গত ২০০০ সালে দিনাজপুর ধর্মপ্রদেশের সাবেক বিশপ মজেস কস্তা অত্র এলাকার মন্দিরটি স্থাপনের মধ্য দিয়ে উক্ত তীর্থ যাত্রা পালাক্রমে পালন করে আসছে। ২০১৪ সালে বর্তমান বিশপ ড. সেবাস্টিয়ান টুডু ফাদার আন্তনি সেনকে আনুষ্ঠানিকভাবে তীর্থ যাত্রা করার প্রসঙ্গে অনুপ্রেরণা যোগান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৪ সালের অক্টোবর মাসের শেষ সাপ্তাহে প্রথম তীর্থ যাত্রা হিসেবে পালন করা হচ্ছে। সেই থেকে প্রতি বছর অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহে দিনাজপুরে খ্রীষ্টিয় ধর্মাবলম্বিদের নিয়ে এই তীর্থ যাত্রা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই তীর্থ যাত্রা একই দিনে ময়মনসিং ও দিনাজপুরে অনুষ্ঠিত হয়। মংমনসিং ও দিনাজপুরে তীর্থ যাত্রা শেষ হওয়ার ১ সপ্তাহের মধ্যেই সিলিটে একই নিয়মে এ তীর্থ যাত্রা পালিত হবে। সিলিটের তীর্থ যাত্রায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলসহ বহির বিশ্বের খ্রীষ্টিয় ধর্মাবলম্বিরা অংশগ্রহণ করে আসছে। দিনাজপুরে অনুষ্ঠিত এই তীর্থ যাত্রায় প্রায় ১৫ হাজার খ্রীষ্টিয় ধর্মাবলম্বিদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে বিশেষ প্রার্থনায় দিনাজপুর ধর্মপ্রদেশের বিশপ ড. সেবাস্টিয়ান টুডু পুরোহিতের দায়িত্ব পালন করেন, তাকে সহযোগিতা করেন দেশের বিভিন্ন জেলা’র মোট ৬০ জন খ্রীষ্টিয় ধর্মযাজকগণ।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST