ঘোষনা:
শিরোনাম :
শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার পেয়েছেন নীলফামারীর মেয়ে দিয়া নীলফামারীতে চিকিৎসক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে লাঞ্চনার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও স্মারক লিপি প্রদান। নীলফামারীতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিতে চড়ম ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ নীলফামারীর আর্চার দিয়া পাচ্ছেন,শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার জিএম কাদেরের নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে জাতীয় পার্টি বললেন,সংসদ সদস্য আদেল নীলফামারীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ ডিমলায় শিশু নির্যাতন বিরোধী র‌্যালী ও আলোচনা সভা নীলফামারীতে চাঁদা না দেওয়ায় চলাচলের রাস্তা বন্ধ, তিন গ্রামের মানুষের দুর্ভোগে ডিমলায় ব্যবসায়িকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা চট্টগ্রামে শশার বস্তাতেই চোলাই মদ ও আফিমসহ গ্রেপ্তার ১ 
নীলফামারীর ডোমারে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে হাটের জায়গা দখলের অভিযোগ।

নীলফামারীর ডোমারে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে হাটের জায়গা দখলের অভিযোগ।

রতন কুমার রায়,স্টাফ রির্পোটার, নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় মির্জাগঞ্জ হাটের জায়গা দখল করে ঘর তুলে বিক্রয় করার অভিযোগ উঠেছে ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাব্বি হোসেনের বিরুদ্ধে। রবিবার সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের কয়েকজন নেতারা।রাব্বি হোসেন হাটের ইজারাদার রাজু আহমেদের সাথে জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের মির্জাগঞ্জ হাটটি যৌথভাবে পরিচালনা করেন।
জোড়াবাড়ী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক রমজান আলী ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান টিটুল লিখিত অভিযোগে জানান, মির্জাগঞ্জ হাটের ইজারা নেয় চিলাহাটি এলাকার রাজু আহমেদ। কিন্তু হাটের পাশ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দা জোড়াবাড়ী ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাব্বি হোসেন দলীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজেকে ইজারাদার পরিচয় দিয়ে হাটে প্রভাব বিস্তার করে। হাটের জায়গা দখলে নিয়ে নতুন দোকান ঘর তৈরী করে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা করে অনেকের কাছে বিক্রি করেছেন। নিজের জন্যও একটি দোকান ঘর তৈরী করে দখল করে রেখেছেন। রাব্বি আমাদের নিজের দলের নেতা হলেও তার দখলবাজির আমরা প্রতিবাদ করেছি।
রাব্বি ইসলাম দোকান ঘর বিক্রির বিষয়টি কৌশলে এড়িয়ে গিয়ে জানান, আমি একজনের কাছে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে আমার গোডাউনে তাকে মাল রাখতে দিয়েছি।
উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আমিনুল ইসলাম রিমুন বলেন, রাব্বির বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ পেয়েছি। প্রমানিত হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মনোয়ার হোসেন জানান, নতুন দোকান ঘর উঠানোর অভিযোগ পেয়ে সেখানে আমি গিয়েছিলাম। গাছ পড়ে ভেঙে যাওয়া দোকান ঘরগুলো মেরামত করতে দেখেছি। তবে আমার আসার পর কোন ঘর উঠানো হয়েছে কিনা, তা যাচাইয়ের জন্য সংশ্লিষ্ট তহশিলদারকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST