ঘোষনা:
শিরোনাম :
শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার পেয়েছেন নীলফামারীর মেয়ে দিয়া নীলফামারীতে চিকিৎসক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে লাঞ্চনার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও স্মারক লিপি প্রদান। নীলফামারীতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিতে চড়ম ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ নীলফামারীর আর্চার দিয়া পাচ্ছেন,শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার জিএম কাদেরের নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে জাতীয় পার্টি বললেন,সংসদ সদস্য আদেল নীলফামারীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ ডিমলায় শিশু নির্যাতন বিরোধী র‌্যালী ও আলোচনা সভা নীলফামারীতে চাঁদা না দেওয়ায় চলাচলের রাস্তা বন্ধ, তিন গ্রামের মানুষের দুর্ভোগে ডিমলায় ব্যবসায়িকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা চট্টগ্রামে শশার বস্তাতেই চোলাই মদ ও আফিমসহ গ্রেপ্তার ১ 
নীলফামারীতে মধ্য রাতে মাতলামি; প্রতিবাদ করায় গুরুতর রগকাটা জখম, থানায় এজাহার।

নীলফামারীতে মধ্য রাতে মাতলামি; প্রতিবাদ করায় গুরুতর রগকাটা জখম, থানায় এজাহার।

মোঃ হারুন উর রশিদ, স্টাফ রিপোর্টার,
নীলফামারীতে মধ্যরাতে উত্তরা ইপিজেট শ্রমিকের বাড়িতে দলবল নিয়ে মাতলামি ও বাড়ির গেটে লাথি মারার প্রতিবাদ করায় গুরুতর রগকাটা জখমের ঘটনা ঘটেছে। গত শনিবার (২৫ জুন ২২) রাত অনুমানিক ১১ টার সময় সদর উপজেলার কুন্দপুকুর ইউনিয়নের পূর্ব সুুটিপাড়া নিউমিলেনিয়াম কিন্ডার গার্টেন স্কুল সংলগ্ন মৃত সেকেন্দার আলীর দ্বিতীয় ছেলে আব্দুল খালেকের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

প্রতিবাদের পরদিন ভোড়রাতে উত্তরা ইপিজেট যাওয়ার পথে এলোপাথারী মারডাং সহ বাম হাতে গুরুতর রগকাটা জখম হয় আব্দুল খালেক। এই ঘটনার পর থেকেই এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাই সুস্থ তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে উপর্যুক্ত শাস্তির দাবীতে সদর থানায় এজাহার দাখিল করেছেন ভুক্তভোগীর পরিবার।

লিখিত এজাহারের ভিত্তিতে, গত শনিবার (২৫ জুন ২২) রাত অনুমানিক ১১ টার সময় আব্দুল খালেকের বাড়িতে অপরিচিত তিন জন সহ মাতলামি ও বাড়ির গেটে লাথি মারে পাশর্^বর্তী চড়াইখোলা ইউনিয়নের পশ্চিম কুচিয়ার মোড় পাঠানপাড়া এলাকার মোঃ ওয়াদ আলীর (৪৫) ছেলে মোঃ সফি (২৭)। আব্দুল খালেক ও তার বড় ভাই আব্দুল মালেক (৩৬) শব্দ শুনে গেটের সামনে গিয়ে তাদের লাথি মারার কারণে গালি-গালাজ করে তাড়িয়ে দিলে তারা হুমকী দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পরেরদিন রবিবার ভোড় অনুমান ০৬ টা ১৫ মিনিটে আব্দুল খালেক উত্তরা ইপিজেটের উদ্দেশ্যে রওনা দিলে এলাকার পুরাতন বন্দরের বাজার ময়দানের মোড়ে উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত মোঃ ওয়াদ আলী ও তার দুই ছেলে মোঃ সফি এবং মোঃ সিয়াম দাড়িয়ে থাকে। তাকে দেখতে পাওয়া মাত্রই অভিযুক্ত সফি ও সিয়াম তাদের হাতে থাকা লোহার রড দিয়ে ডান ও বাম হাতের উপরে ৫ম মেটাকার পাল ফাটা জখম করে। সেইসাথে হত্যার উদ্দ্যেশে মোঃ ওয়াদ আলী হাতে থাকা ছোরা দিয়ে আব্দুল খালেকের মাথায় চোর্ট মারে। জীবন রক্ষার্থে চোর্টকে প্রতিহত করার চেষ্টা করলে উক্ত চোর্ট তার বাম হাতের কব্জিতে লাগে এবং গুরুতর রগকাটা জখম হয়। আব্দুল খালেকের চিৎকারে বড় ভাই আব্দুল মালেক সহ এলাকাবাসী উপস্থিত হলে তারা রড়,ছোড়া দেখিয়ে সকলকে প্রাণ নাশের হুমকী দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এলাকাবাসী গুরুতর আহত আব্দুল খালেককে অটোরিক্সায় চিকিৎসার জন্য নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। পরবর্তীতে তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। তাই সুস্থ তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীদের আইনের আওতায় নিয়ে উপর্যুক্ত শাস্তির দাবী ভুক্তভোগীর পরিবারটির।

জানতে চাইলে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রউপ বলেন, মামলা হয়েছে। মামলা নং-১৮, তারিখ-৩০/০৬/২০২২ ইং। আসামী পলাতক আছে তাদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST