ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে পুলিশ সুপারের সাথে হিন্দু ধর্মালম্বীদের মতবিনিময় নীলফামারীতে সামাজিক-সম্প্রীতি সমাবেশ হয়েছে। ডিমলায় কৃষক সমাবেশ ও আলোচনা সভা নীলফামারীতে ডিজি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভুল রিপোর্ট প্রদান, সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ। সাফের ইতিহাসে নতুন ইতিহাস গড়লেন সাবিনা কৃষ্ণারা ডিমলায় সড়ক দূঘর্টনায় ভিক্ষুকের মৃত্যু নীলফামারীতে চিরকুট লিখে আত্মহত্যা-স্বামী-সহ ৪ জনের নামে মামলা,স্বামী গ্রেফতার নীলফামারী সৈয়দপুরে পরিবারের অত্যাচারে সুইসাইড নোট লিখে গৃহবধূর আত্নহত্যা নীলফামারীতে বহুল প্রচারিত যুগের আলো পত্রিকার ৩০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। ডিমলায় সাংবাদিককে পেটালেন শিক্ষক স্বদেশ
নীলফামারীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ

নীলফামারীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ

নীলফামারীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ

মোঃ হারুন উর রশিদ,স্টাফ রিপোর্টার,

নীলফামারীতে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধভাবে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার (০৩ আগস্ট/২২) সকালে জলঢাকা পৌরসভার বগুলাগাড়ী মিয়াপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে সন্ত্রাশী কায়দায় লাঠি সোটা নিয়ে বিরোধপূর্ণ জমি দখল করে আমন ধানের চারা রোপন করেন এলাকার মৃত সামসুল হকের ছেলে মোঃ মোস্তো এবং মৃত মনছুর আলীর ছেলে মোঃ সিরাজুল ইসলাম ও মোঃ এনামুল হক।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, উপজেলার মাথাভাঙ্গা এলাকার মৃত মাওলানা আঃ গফুরের ছেলে আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুল্লা সিদ্দিকী বগুলাগাড়ী মৌজার সি,এস খতিয়ান ৬০০, এস,এ খতিয়ান ৬৮৪ এবং ১১২৮ দাগে মোট ২২ শতক জমির মধ্যে ০১১ শতকের মধ্যে দক্ষিনাংশে ০৮ শতক জমির মালিক।

দীর্ঘদিন ভোগদখলীয় অবস্থায় থাকার পর হঠাৎ করেই ওই জমির মালিকানাদাবী করে জবরদখলের চেষ্টা করেন বগুলাগাড়ী মিয়াপাড়া এলাকার মৃত সামসুল হকের ছেলে মোঃ মোস্তো এবং মৃত মনছুর আলীর ছেলে মোঃ সিরাজুল ইসলাম ও মোঃ এনামুল হক। পরবর্তীতে আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুল্লা সিদ্দিকী বাদী হয়ে নীলফাামরী বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-পি-২২৬/২২ ইং।

আদালত মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত উভয় পক্ষকে শান্তি-শৃংখলা বজায় রাখতে বলেন। সেইসাথে কোন পক্ষই এবং কাহারো দ্বারা বিরোধীয় সম্পত্তিতে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ও সম্পত্তি নিয়ে কোন পক্ষেরই কোন প্রকার অজর আপত্তি থাকলে তা বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হবে বলে আইনি নোটিশ প্রদান করেন। একই সাথে আদালত দুইপক্ষকে জমিতে না যাওয়ার জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করে এবং জলঢাকা থানার কর্মকর্তাকে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য নির্দেশ দেয়। কিন্তু আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধ ভাবে বিরোধপূর্ণ জমি দখল করে আমন ধানের চারা রোপন করেন।

তাই অবৈধভাবে জমি দখলকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী ভূক্তভোগী আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুল্লা সিদ্দিকী ও তার পরিবারের।

জানতে চাইলে জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফিরোজ কবির বলেন, আমার কাছে এখনো লিখিত অভিযোগ আসে নাই।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST