ঘোষনা:
রানু মণ্ডল শিল্পির টাকা মেরে খাওয়ার অভিযোগ। ‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হির’ ছবিতে হিমেশ রেশমিয়ার সুরে ‘তেরি মেরি’ গান রেকর্ড করেছেন রানু মণ্ডল।

রানু মণ্ডল শিল্পির টাকা মেরে খাওয়ার অভিযোগ। ‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হির’ ছবিতে হিমেশ রেশমিয়ার সুরে ‘তেরি মেরি’ গান রেকর্ড করেছেন রানু মণ্ডল।

বিনোদন ডেস্ক,
‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হির’ ছবিতে হিমেশ রেশমিয়ার সুরে ‘তেরি মেরি’ গান রেকর্ড করেছেন রানু মণ্ডল। পারিশ্রমিক হিসেবে রানু মণ্ডলকে ছয় থেকে সাত লাখ রুপি দিয়েছেন হিমেশ রেশমিয়া। আবার আরেকটি সংবাদমাধ্যম বলেছে, রানু পেয়েছেন তিন থেকে চার লাখ রুপি। অতীন্দ্র চক্রবর্তী তখন বলছেন, যে পরিমাণ অর্থের কথা বলা হচ্ছে, এটা ঠিক না। এবার রানু মণ্ডলের মেয়ে স্বাতী অভিযোগ করেছেন, এই অতীন্দ্র চক্রবর্তী তাঁর মায়ের সব অর্থ আত্মসাৎ করছেন। মাকে ব্যবহার করে তাঁরা বিপুল অর্থের মালিক হচ্ছেন। এ কারণেই মেয়েকে মায়ের কাছে আসতে বাধা দিচ্ছেন। অতীন্দ্র চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ, তিনি নাকি রানু মণ্ডলের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে ১০ হাজার রুপি তুলে নিয়েছেন। এসব খবর গত কয়েক দিন ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

এসব অভিযোগ শুনে এবার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন অতীন্দ্র চক্রবর্তী। গতকাল মঙ্গলবার তিনি ফেসবুক লাইভ করেছেন। এ সময় তাঁর পাশে ছিলেন রানু মণ্ডল। অতীন্দ্র চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের ব্যাপারে তিনি বলেছেন, ‘এসব বাজে কথা। অতীন্দ্র ব্যাংক থেকে ১০ হাজার রুপি নেয়নি। কোনো রকম বদনাম যেন না রটে। কারও ব্যাপারে না জেনে রটানো হচ্ছে, এগুলো অন্যায়। বন্ধ করুন। ভালো লাগে না। সত্যিটা না জেনে কিছু ছাপাবেন না। আগে জিজ্ঞেস করুন, তারপর লিখুন।’

আর ফেসবুক লাইভে অতীন্দ্র চক্রবর্তী বলেছেন, ‘যাঁরা এসব রটাচ্ছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আমরা আইনি ব্যবস্থা নেব।’ তিনি নিউজ এইটিন আর এনডি টিভি চ্যানেলের উল্লেখ করে বলেছেন, ‘এসব টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব, তারা আমাদের নামে উল্টাপাল্টা রটাচ্ছে। সংবাদমাধ্যমগুলোকে অনুরোধ করছি, কোনো গুজব রটাবেন না।’

রানু মণ্ডল এক সাক্ষাৎকারে অতীন্দ্র চক্রবর্তীকে ‘ভগবানের ভিখিরি’ বলেছেন। তা নিয়েও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম অনেক কিছু লিখেছে। এ ব্যাপারে অতীন্দ্র চক্রবর্তী বলেছেন, ‘ভগবানের ভিখারি নিয়ে এত দিন চলল। তা নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই, আপনাদের মাথা ব্যথা হয়ে গেছে।’

রানাঘাট রেলস্টেশনে গান গেয়ে ভিক্ষা করতেন রানু মণ্ডল। স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে বসে লতা মঙ্গেশকরের ‘এক প্যায়ার কা নাগমা হ্যায়’ গানটি তিনি গেয়েছিলেন। তা রেকর্ড করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেন অতীন্দ্র চক্রবর্তী। রাতারাতি তারকা বনে যান রানু মণ্ডল। এরপর রানু মণ্ডলের সবকিছু দেখাশোনা করছেন অতীন্দ্র চক্রবর্তী। তিনি পেশায় প্রকৌশলী। নিজের চাকরি ছেড়ে তিনি এখন রানু মণ্ডলকে নিয়ে মুম্বাইয়ে আছেন।

এদিকে কয়েক দিন ধরে শোনা যাচ্ছে, লতা মঙ্গেশকরের সঙ্গে গান করবেন রানু মণ্ডল। লতা মঙ্গেশকর আর রানু মণ্ডলের একটা ছবিও ভাইরাল হয়েছে। তাতে দেখা যায়, রানু মণ্ডলকে আশীর্বাদ করছেন লতা মঙ্গেশকর। পরে জানা গেছে, সেটি ছিল লতা মঙ্গেশকর আর তাঁর বোন আশা ভোসলের ছবি। ছবিতে আশা ভোসলের জায়গায় ফটোশপের কারসাজি করে রানু মণ্ডলের মুখ বসিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আজ বুধবার সকালে ডেকান ক্রনিকলকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রানু মণ্ডলের ব্যাপারে লতা মঙ্গেশকর বলেছেন, ‘কে সে? আমি জীবনে তার নামই শুনিনি, দেখা হওয়া তো অনেক দূরের কথা। আর আমি নাকি তার সঙ্গে গাইব! এসব কোথায় পান, বুঝি না।’ সংবাদকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ভুয়া খবর থেকে সাবধান।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST