ঘোষনা:
বিপিএলের দ্বিতীয় লেগের প্রথম খেলায় নিজেদের মাঠে বসুন্ধরা কিংস’র দুদান্ত জয়,বসুন্ধরা-৩ শেখ জামাল-১

বিপিএলের দ্বিতীয় লেগের প্রথম খেলায় নিজেদের মাঠে বসুন্ধরা কিংস’র দুদান্ত জয়,বসুন্ধরা-৩ শেখ জামাল-১

ক্রীড়া প্রতিবেদক,

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) ফুটবলের দ্বিতীয় লেগের প্রথম খেলায় নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়ামে আজ বৃহস্পতিবার শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব লিমিটেডের বিপক্ষে ৩-১ গোলে জয় পেয়েছে স্বাধীনতা কাপ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। দুর্দান্ত গোল ও আক্রমন, পাল্টা আক্রমনের একটি উপভোগ্য ফুটবল ম্যাচের যে রসদ থাকার প্রয়োজন তার সবই পাওয়া গেছে গতকালের এই ম্যাচে। এনিয়ে নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে অনুষ্টিত প্রথম পর্বের ৭ ও দ্বিতীয় পর্বের ১টি ম্যাচের সবগুলোতেই জয় পেল বসুন্ধরা কিংস । তবে রমজানের কারণে গতকাল স্টেডিয়ামে দর্শকের সংখ্যা ছিল অনেক কম। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় খেলা শুরু হয়। খেলা শুরুর পর থেকেই দর্শকদের প্রতিদ্বন্দিতা পূর্ণ একটি ম্যাচ উপহার দেয় দু’দলেই। প্রথমার্ধের ৩৫ মিনিট পর্যন্ত কোন দলেই গোলের দেখা না পেলেও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ৩,২৩,২৪,২৬ ও ৪০ মিনিটে ৫টি ও বসুন্ধরা কিংস ১০,১৫,২৭ ও ৪৫ মিনিটে সম্ভাবনাময় ৪টি গোল মিস করেন। এরপর ৩৬ মিনিটে কাঙ্খিত গোলের দেখা পান বসুন্ধরা কিংস। শেখ জামালের গোলবারের ডান দিক থেকে কোস্টারিকার ফুটবলার কলিনড্রেসের পাস থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের সামনে থেকে শেখ জামালের জালে বল পাঠান ব্রাজিলিযার খেলোয়ার মারকোস ভেনিকার্ড। ১-০ গোলে শেষ হয় প্রথমার্ধ।
দ্বিতীয়ার্ধ খেলা শুরুর পর থেকেই সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে উঠে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।স্বল্প সময়ের মধ্যে সমতায় ফেরার চেষ্টায় সফলও হন তারা। দ্বিতীয়ার্ধের ৫২ মিনিটে গাম্বিয়ান ফুটবলার ইবৌ ক্যানটেস এর পাস থেকে বল পেয়ে চমৎকার একটি গোল করেন অপর গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ইমেল। গোল শোধ হওয়ার পর আক্রমত্মক খেলতে থাকেন বসুন্ধরা কিংস। ৫৬ মিনিটে কোস্টারিকার ফুটবলার কলিনড্রেসের কর্ণার কিক থেকে বল পান মিড ফরোয়ার্ড ইমন মাহমুদ। এরপর ইমনের পাস থেকে মতিন মিয়া বল পেয়ে সোজা পাঠান শেখ জামালের জালে। ২-১ গোলের ব্যবধান নিয়ে খেলা চলতে থাকে আক্রমন-পাল্টা আক্রমনে। কিন্তু বসুন্ধরার আক্রমন বেশীক্ষণ ঠেকিয়ে রাখতে পারেনি শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। ৬৩ মিনিটে ব্রাজিলিযার খেলোয়ার মারকোস ভেনিকার্ডের পাস থেকে ডি-বক্সের একটু সামনে থাকা মতিন মিয়া বল পেয়ে যান। সেখান থেকে মতিন মিয়া বল ড্রিবলিং করে শেখ জামালের গোল কিপার নাইমকে ফাঁকি দিয়ে দারুণ ভাবে আরো একটি গোল করে ৩-১ গোলে ব্যবধান বাড়ান। এরপর শেখ জামাল তিনজন খেলোয়ারকে পরিবর্তন করেও গোলের ব্যবধান কমাতে পারেনি। ৭৭ মিনিটে বসুন্ধরা কিংস গোলরক্ষক আনিছুর রহমান জিকোকে তুলে নিয়ে তার স্থলে নামান মিতুন হাসানকে। দ্বিতীয়ার্ধে দুু’দলেই বেশ কয়েকটি গোল মিস করেন।
খেলা শেষে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব লিমিটেডের টিম ম্যানেজার আনোয়ারুল করিম হেলাল জানান তার দল খুবেই ভাল খেলেছে। কিন্তু মাঠটি ভেজা থাকায় ও বেশ কয়েকটি গোল মিস করায় তাদের পরাজয় হয়েছে।
খেলা শেষে র‌্যাফেল ড্র অনুষ্টিত হয়। র‌্যাফেল ড্র’র প্রথম পুরস্কার ছিল একটি ফ্রিজ। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন মুন বলেন, বিপিএল’র দ্বিতীয় লেগের প্রথম ম্যাচটি দারুণভাবে উপভোগ করেছে এখানকার দর্শকরা।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST