ঘোষনা:
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে গৃহহীনদের মাঝে জমিসহ ঘরের চাবি হস্তান্তর ডোমারে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণে অনিয়মের তদন্ত নীলফামারীতে গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল সহ ঘরের চাবি হস্তান্তর। নীলফামারীতে আশ্রয়হীন ১২৫০ পরিবারের স্বপ্ন এখন সত্যি কিশোরগঞ্জ মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের রড চুরি- ধ্রুত চোরকে ছেড়ে দিল কর্তৃপক্ষ নীলফামারীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু রাত পোহালেই ডিমলায় নতুন ঘরে উঠবেন ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার ওয়ালটনের মিলিয়নিয়ার অফারে ফ্রিজ কিনে ১০ লক্ষ টাকা পেলেন জলঢাকার মতি টাঙ্গাইলে নতুন ৯২ জন করোনা শনাক্ত বাংলাদেশ সরকারের প্রথম অর্থ সচিবের স্ত্রী কুলসুম জামান আর নেই
সূর্য্যমূখী চাষের পরে, বিক্রয় ব্যবস্থা নিশ্চিত না হলে,ক্ষতিগ্রস্ত হবে কৃষক ।

সূর্য্যমূখী চাষের পরে, বিক্রয় ব্যবস্থা নিশ্চিত না হলে,ক্ষতিগ্রস্ত হবে কৃষক ।

লেখক,আব্দুল মান্নান

আব্দুল মান্নান,

সূর্য্যমূখীর চাষ ও এর বিক্রয় ব্যবস্থা নিশ্চিত করণ।সূর্য্যমূখী একটি তেল জাতীয় ফসল।তেল ছাড়াও মাছ ও পশু পাখির খাদ্য
হিসাবে এর ব্যবহার করা হয়।সূর্য্যমূখীর চাষ নীলফামারী জেলায় আগে হতোনা।

সূর্যমুখির বীজ বাজার ব্যাবস্থা না থাকায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক।

তবে গত বছরেএ ফসলটির সামান্য চাষ হয়েছিল বলে স্থানীয় এগ্রিকালচার অফিস সূত্রে জানা যায়। এ বছরে সূর্য্যমূখীর চাষ সম্প্রসারণে কৃষি প্রণোদনা,কৃষি পূণর্বাসন ও রাজস্ব খাতের প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৬ হেক্টর জমিতে সূর্য্যমূখীর চাষ হয়েছে বলে এগ্রিকালচার অফিস সূত্রে জানা গেছে। নুতন এ ফসলের চাষ সম্প্রসারণে যা প্রশংসনীয় উদ্যোগ বলা যায়। ফলনও আশানুরূপ। চাষীরা বেজায় খুশী। সফলতার পিছনেই লুকিয়ে থাকে বিফল হওয়ার আশংকা। যা হতাশায় ফেলেছে সূর্য্যমূখী চাষীদের। তারা উৎপাদিত ফসল ক্রেতার অভাবে বিক্রি করতে পারছে না। ফলে এ ফসল নিয়ে তারা পরেছে বিপাকে। উপজেলা কৃষি অফিসও এর বাজার জাতের বিষয়টির কোন নিশ্চয়তা দিতে পারছেন না।ফসলটির বাজার জাতের কোন ব্যবস্থা নেয়া না হলে সূর্য্যমূখীর চাষীরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে বলে আশংকা করছেন। যা আগামীতে এ ফসল চাষে বিরুপ প্রভাব পড়তে পারে। নুতন ফসল চাষের সাথে উৎপাদিত পণ্যের বাজারজাত করণের বিষয়টি ওতোপ্রোতভাবে জড়িত। এর যে কোন একটিতে ঘাটতি হলে পরবর্তীতে সম্প্রসারণ কার্য্যক্রম বাধাগ্রস্থ হতে পারে। যে বিষয়টি দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণের অগ্রিম ভাবতে হবে।তা না করলে এর যেকোন সমস্যা দায়িত্ব পালনকারীর ওপর অবহেলার বিষয়টিই ফুটে উঠে। তাই, সূর্য্যমূখী ফসল বিক্রয়ে কৃষি বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তপক্ষ আন্তরিক হয়ে দ্রুত বাজারজাতকরণে পদক্ষেপ গ্রহন করবেন এমনটি আশা করছেন কিশোর গঞ্জ উপজেলার সূর্য্যমূখী চাষীরা।
লেখক ,আব্দুল মান্নান।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST