ঘোষনা:
শিরোনাম :
নীলফামারীতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন। খুলনায় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় অর্থদণ্ড ও কারাদণ্ড প্রদান । জলঢাকায় হরিজন পল্লীতে তুরিন আফরোজ কিশোরগঞ্জে ভাতাভোগীদের টাকা হাতিয়েছে প্রতারক চক্রটি জলঢাকায় আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর বৃক্ষ রোপন ও চারাগাছ বিতরণ নীলফামারীতে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বৃক্ষরোপন করেছে আনসার ওভিডিপি। সৈয়দপুরে রেলের তদন্ত প্রতিবেদন,নিজেকে বাঁচাতে উপজেলা চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন । পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে করোনা আক্রান্ত মাদ্রাসা শিক্ষিকার মৃত্যু। বাংলাদেশ স্কাউটস এর স্ট্রাটেজিক প্ল্যান ও গ্রোথ মূল্যায়ন ওয়ার্কশপ বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ১, আহত ২
‘ফিল্ম’ তৈরি ১৫ মিনিটে! থিয়েটারে ঢুকেই নায়িকা কানেতা,

‘ফিল্ম’ তৈরি ১৫ মিনিটে! থিয়েটারে ঢুকেই নায়িকা কানেতা,

বিনোদন ডেস্ক,

রামোজি ফিল্ম সিটি ঘুরে: রামোজি ফিল্ম সিটির অ্যাকশন থিয়েটারে ঢোকার পর ইন্ট্রোডিউসিং হলে উপস্থাপিকা ডাকলেন ‘নায়ক হতে ইচ্ছুক’ এক তরুণ এবং ‘নায়িকা হতে ইচ্ছুক’ এক তরুণীকে। তখনো কেউ আন্দাজ করতে পারছিলো না, ভেতরে কী ঘটতে চলেছে।

ইন্ট্রোডিউসিং থেকে বাংলাদেশ ইয়ুথ ডেলিগেশন টিমসহ সবাই অ্যাকশন হলে ঢুকলো। উল্টো নয়া চাঁদের মতো আসনে বসা প্রায় দু’শ দর্শনার্থী। মঞ্চে একটি ঘোড়ার গাড়ির মতো ঘর, ঘরের নিচে চাকার বদলে লাঠি পাতা। ঘরটি থেকে সামনের দিকে ঘোড়া ছোটানোর মতো চাবুক বাঁধা। মঞ্চের ওপরে দু’টি পর্দা। সেই পর্দায় প্রথমে দেখানো হয় চলচ্চিত্রে সবার ভূমিকা নিয়ে সংক্ষিপ্ত একটি কমেডি ভিডিও। এর পর মঞ্চে আসেন উপস্থাপিকা সুপ্রিয়া। শুরু করেন পরের পর্ব।

সুপ্রিয়া ডাক দেন সেই তরুণ ‘আশিস হালদার’ ও তরুণী ‘উম্মে হুমায়রা কানেতা’কে। কানেতাকে উপস্থাপিকা সেই ঘরে বসিয়ে আশিসকে বলেন ঘরটির নিচে পেতে রাখা লাঠি নাচাতে। পাশাপাশি কানেতাকে বলেন মুখে ভীতির ছাপ রেখে চাবুক ছোটাতে। নির্দেশনা অনুসারে আশিস-কানেতা ‘অভিনয়’ শুরু করলে করতালি-হর্ষধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে অ্যাকশন হল, কারণ তখন যে ওপরের পর্দায় ঘোড়া ছোটাতে দেখা যাচ্ছিলো কানেতাকে। এ তো সাক্ষাৎ ফিল্মি দৃশ্য! কেবল, ফিল্মে যে ভয়ানক শব্দ আসে, তা-ই শোনা যাচ্ছিলো না।

এবার উপস্থাপিকা অ্যাকশন হল থেকে সবাইকে পাশেরই পোস্ট প্রোডাকশান হলে নিয়ে গেলেন। সেখানেও দর্শনার্থীদের জন্য একই রকম সারি। মঞ্চে রাখা নারিকেলের খোসা ও পাথর, বালু ও চাবির রিং এবং ঘূর্ণায়মান চাকার সঙ্গে কাপড় দেখিয়ে পরবর্তী চমকের জন্য সুপ্রিয়া দর্শনার্থী হল থেকে ডেকে নেন চার টেকনিক্যাল পারসনকে। বাতি বন্ধ হতেই কেউ নারিকেলের খোসা জোরে আঘাত করতে থাকেন পাথরে, কেউ চাবির রিং বাজাতে থাকেন বালুতে। তখন পর্দায় দেখা যায় ছুটন্ত ঘোড়ায় একদল পেয়াদার ছোটার দৃশ্য, সঙ্গে শোনা যায় ছোটাছুটি ও ভয়জাগানিয়া শব্দ।

এবার পোস্ট-প্রোডাকশান হল থেকে সুপ্রিয়া সবাইকে নিয়ে যান প্রিমিয়ার হলে। সেখানে তিনি বলেন, আগের দুই হলে যা হলো, এবার তার ফল দেখুন। হলের পর্দায় চললো ১ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের একটি ‘অসমাপ্ত ফিল্ম’। কানেতা ঘোড়ার গাড়ি ছোটাচ্ছেন, তাকে তাড়া করছে পেয়াদারা। এবার ছুটন্ত ঘোড়ার গাড়ির শব্দও শোনা যাচ্ছে, পেছনে অশ্বারোহী পেয়াদাদের তাড়া করার শব্দও মিলছে। যেন সত্যি সত্যি কোনো ফিল্মের দৃশ্য। তাও একেবারে ১৫ মিনিটেরও কম সময়ে নির্মিত।

উপস্থাপিকা সুপ্রিয়া এবার মঞ্চে এসে বললেন, এখন চলচ্চিত্রে যা দেখানো হয়, তা নির্মাণ অনেকখানিই সহজ করে দিয়েছে এই ধরনের উদ্ভাবনী ধারণা ও প্রযুক্তি। এই ভিডিওও সবার সামনে সহজে বানিয়ে ফেলা হলো।

তিনি রসিকতা করে বলেন, এটা একটা কমপ্লিট কমেডি সিনেমা। কারণ নায়িকার চেহারায় ভয় ছিলো না। তাকে ভয় পাইয়ে দিতে হতো।

হল থেকে বেরোনোর সময় উপস্থাপিকা নায়িকা কানেতাকে তার ‘ফিল্ম’র ভিডিও দিলেন। তবে কেউ কেউ আক্ষেপ করলেন আশিস হালদারের জন্য। বেচারাকে প্রথমে নায়ক হিসেবে নিয়ে যাওয়া হলেও আর দেখানোই হলো না তাকে!





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST