ঘোষনা:
শিরোনাম :
খুলনার ভৈরব নদ থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নীলফামারীর ডোমারে করোনা প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান প্রচারণার উদ্বোধন । বাগেরহাট সদরের তালশাস কাটাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত -১ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকায় ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৫। চট্টগ্রামে মিতু হত্যা মামলায় আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে ১৪ দিন পর ঢাকায় ফেরার অনুরোধ ২৩ মে পর্যন্ত লকডাউনে নতুন দুটি প্রজ্ঞাপন জারি। নীলফামারীতে ধান কাটতে গিয়ে গুরুতর জখম দিনমজুর। নীলফামারী কিশোরগঞ্জে প্রকৃতিতে হলদে হাসির সৌরভে রঙ ছড়াচ্ছে সোনাইল ফুল
জীবন্ত কিংবদন্তি রথীন্দ্রনাথ রায়,১৯ বছর পর প্লেব্যাক।

জীবন্ত কিংবদন্তি রথীন্দ্রনাথ রায়,১৯ বছর পর প্লেব্যাক।

রথীন্দ্রনাথ রায় (মাঝে)। ছবি: সংগৃহীতরথীন্দ্রনাথ রায় (মাঝে)। ছবি: সংগৃহীত

বিনোদন প্রতিবেদক,
১৯ বছর পর প্লেব্যাক করলেন লোকগানের জীবন্ত কিংবদন্তি রথীন্দ্রনাথ রায়। সরকারি অনুদানে নির্মিত নিশীথ সূর্য পরিচালিত ‘পায়রার চিঠি’ চলচ্চিত্রের জন্য তিনি এই গান গেয়েছেন। ‘যাপিত জীবন আনন্দ লগন’ শিরোনামের গানটির কথা ও সুর করেছেন পরিচালক নিজে। আর সংগীত আয়োজন করেছেন মুশফিক লিটু।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ‘লং-প্লে’ স্টুডিওতে কণ্ঠ ধারণ করা হয় রথীন্দ্রনাথ রায়ের। গান করতে এসে গুণী এই শিল্পী বলেন, ‘২০০০ সালে সর্বশেষ “হৃদয়ের বন্ধন” সিনেমায় প্লেব্যাক করেছি। দীর্ঘদিন পর “পায়রার চিঠি” সিনেমায় গান করার প্রস্তাব দেন সিনেমাটির পরিচালক নিশীথ সূর্য। কীর্তন আঙ্গিকের এই গান আমাকে ভেবেই সুর করা হয়েছে শুনে প্লেব্যাক করার আগ্রহ পাই আমি। দীর্ঘদিন পর একটি ভালো কথা ও সুরের গান করতে পেরে আমি আনন্দিত।’রথীন্দ্রনাথ রায় চলচ্চিত্রে বহু কালজয়ী গান করেছেন। এর মধ্যে ‘অন্ধ বঁধু’ সিনেমার ‘ও যার অন্তরে বাহিরে কোনো তফাত নাই’ এবং ‘নাগরদোলা’ সিনেমার ‘তুমি আরেক বার আসিয়া যাও মোরে কান্দাইয়া’ গানের জন্য পেয়েছিলেন ‘বাচসাস’ পুরস্কার। এ ছাড়া ফকির মজনু শাহ চলচ্চিত্রের ‘সবাই বলে বয়েস বাড়ে’ এবং ‘নালিশ’ চলচ্চিত্রের ‘খোদার ঘরে নালিশ করতে দিলো না আমারে’ গানগুলোর কথা এখনো ভুলতে পারেনি বাংলা গানের শ্রোতারা। ১৯৯৫ সালে একুশে পদক লাভ করেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের এই শিল্পী।





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST