ঘোষনা:
শিরোনাম :
ডিমলায় তিস্তার চরে ভুট্টার বাম্পার ফলন। সাতক্ষীরায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মেডিকেল হাসপাতালে নারীসহ দুই জনের মৃত্যু। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপজেলা শাখা গঠনের আলোচনা সভা । নীলফামারীতে চাঁদা দিতে না পারায়,ঘরে অগ্নিসংযোগ জোড়পূর্বক মাছ চুরি। সৈয়দপুরের তিন শিক্ষার্থীর ভর্তি অনিশ্চিত মেডিকেল কলেজে । করোনা আক্রান্ত জননেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন অনেকটা সুস্থ্য বোধ করছেন। লকডাউনে ১০টা -০১ টা পর্যস্ত খোলা থাকবে ব্যাংক সেবা। চাঁদ দেখা গেছে, বুধবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু। শঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই, সরকার সবসময় পাশে থাকবে;প্রধানমন্ত্রী। সিলেটে দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের ৫ ক্রিকেটার করোনা শনাক্ত।
শুভ জন্মদিন,ডিম্পল কাপাডিয়া, আজ তাঁর জন্মদিন

শুভ জন্মদিন,ডিম্পল কাপাডিয়া, আজ তাঁর জন্মদিন

ডিম্পল কাপাডিয়া, আজ তাঁর জন্মদিন

বিনোদন ডেস্ক ,

লিখলে বাড়াবাড়ি হবে না—তাঁর নামের সঙ্গে ‘মোহময়ী’ শব্দটা জুতসই। যাঁরা সত্তর–আশি দশকে হিন্দি চলচ্চিত্রের অনুরাগী ছিলেন, অন্তত তাঁদের কাছে। মাত্র ১৬ বছর বয়সে এই অভিনেত্রী রাজ কাপুরের টিনএজ রোমান্স ‘ববি’তে অভিনয় করে সাড়া ফেলে দেন। বেশ কিছু খোলামেলা সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করে দর্শকহৃদয়ে স্থান করে নেন। এখনো বলিউড দুনিয়ার চিরসবুজ প্রেমের ছবির কথা উঠলে ‘ববি’র নাম থাকে তালিকার প্রথম সারিতে। সেই ‘ববি’খ্যাত নারী ডিম্পল কাপাডিয়া, আজ ৮ জুন যাঁর জন্মদিন।

সত্তরের দশকে ‘ববি’ সিনেমা দিয়ে বড় পর্দায় এসে ডিম্পল কাপাডিয়া ‘সেক্স সিম্বল’ হিসেবে পরিচিতি পান। তবে সে তকমা সরিয়ে দ্রুতই নিজেকে তিনি অভিনয়গুণে প্রতিষ্ঠিত করেন। সমান্তরাল সিনেমায় একের পর এক পারফরম্যান্স দিয়ে গেছেন।

পুরো নাম ডিম্পল চুন্নিভাই কাপাডিয়া। উপমহাদেশের চলচ্চিত্রজগতে তাঁকে সবাই ডিম্পল কাপাডিয়া নামেই চেনে। গুজরাটি ব্যবসায়ী চুন্নিভাই কাপাডিয়া ও বেটি দম্পতির চার সন্তানের মধ্যে ডিম্পল সবার বড়। তাঁর ছোট ভাইবোনের মধ্যে প্রয়াত সিম্পল কাপাডিয়া অভিনেত্রী ছিলেন। ডিম্পলরা মুম্বাইয়ের সান্তা ক্রুজ এলাকায় থাকতেন।

রাজেশ খান্নার সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ১৬ বছর বয়সেরাজেশ খান্নার সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ১৬ বছর বয়সে
ষোলোতেই শুরু তাঁর
১৯৫৭ সালের আজকের দিনটি, অর্থাৎ ৮ জুন জন্মগ্রহণ করেন ডিম্পল কাপাডিয়া। তার মানে ৬৩-তে পড়েছেন। সে হিসাবে জ্যেষ্ঠ নাগরিকের খাতায় তাঁর নাম উঠে গেছে। তাতে কী? এখনো ডিম্পল রূপের ছটায় ম্লান করে দিতে পারেন বলিউডের সেরা অভিনেত্রীদের।

১৯৭৩ সালে রাজ কাপুরের সিনেমা ‘ববি’ দিয়ে বলিউডে অভিনয় শুরু করেন ডিম্পল কাপাডিয়া। অবশ্য ‘ববি’ মুক্তি পাওয়ার ছয় মাস আগেই রাজেশ খান্নার সঙ্গে ডিম্পলের বিয়ে হয়ে গিয়েছিল। ডিম্পলের তখন মাত্র ১৬ বছর বয়স ছিল। অন্যদিকে রাজেশ খান্না ডিম্পলের থেকে ১৫ বছরের বড়। অনেকেই সেই সময় মনে করেছিল, শুধু সবার মনোযোগ পাওয়ার জন্য ডিম্পলকে বিয়ে করছেন রাজেশ খান্না। বিয়ের পর ঘটা করে মুম্বাইয়ের জুহুতে অবস্থিত ‘হরাইজন’ হোটেলে বিয়ের রিসেপশন হয় ডিম্পল–রাজেশ দম্পতির। মধুচন্দ্রিমা করতে ইউরোপে গিয়েছিলেন তাঁরা।

বিয়ের পর দীর্ঘ ১২ বছর অভিনয় করেননি ডিম্পল। জানা গেছে, রাজেশ খান্নাই নাকি ডিম্পলকে অভিনয় করতে দেননি। ১৯৮২ সালে বিয়ের নয় বছর পর মেয়েদের নিয়ে শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে আলাদা থাকা শুরু করেন ডিম্পল, ফিরে যান বাবার বাড়িতে। এরপর দুই বছরের মধ্যে অভিনয়ে ফেরেন। ১৯৮৫ সালে সিনেমায় ফেরার পর এক সাক্ষাৎকারে রাজেশ খান্নার সঙ্গে বিয়েকে ‘মস্ত ভুল’ বলে ব্যাখ্যা করেন তিনি। ডিম্পল বলেন, রাজেশের সঙ্গে বিয়ের দিন থেকে পরিবারের সমস্ত সুখ বিদায় নিয়েছিল।

ডিম্পলের মেয়ে টুইনকেল খান্নাও বেশ খ্যাতি অর্জন করেছেন বলিউড দুনিয়ায়ডিম্পলের মেয়ে টুইনকেল খান্নাও বেশ খ্যাতি অর্জন করেছেন বলিউড দুনিয়ায়
বারবার ভেঙেছেন, গড়েছেন
নিজেকে ভেঙেছেন, গড়েছেন ডিম্পল। প্রতিবারই পর্দায় ফিরেছেন নতুন অভিনেত্রী হিসেবে। প্রতিবারই নিজেকে অন্যভাবে দর্শকের সামনে তুলে ধরেছেন। ‘ববি’ সিনেমা দিয়ে বড় পর্দায় আসার পর সারা দেশে ‘সেক্স সিম্বল’ তকমা জুড়ে গিয়েছিল। তবে সেখানে থেমে থাকেনি তাঁর নাম। নিজেকে অভিনয়ের গুণে প্রতিষ্ঠিত করেন। ‘কাশ’, ‘দৃষ্টি’, ‘লেকিন’, ‘রুদালি’-র মতো চলচ্চিত্রে তাঁকে সাফল্যের শিখরে পৌঁছে দেয়। নব্বইয়ের দশকে ‘গরদিশ’, ‘ক্রান্তিবীর’–এর মতো সিনেমায় জমিয়ে অভিনয় করেছেন ডিম্পল। অভিনেত্রী হিসেবে ‘রুদালি’ সিনেমার জন্য ১৯৯৩ সালে জাতীয় পুরস্কার পান তিনি। এ ছাড়া ১৯৭৩ সালে ‘ববি’ সিনেমার জন্য সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার পান। বেশ কয়েকবার সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন তিনি। এ ছাড়া ২০০১ সালে আমির খানের সিনেমা ‘দিল চাহতা হ্যায়’-তেও চ্যালেঞ্জিং ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যায়।

অবশ্য গত ১০ বছরে ডিম্পল সেভাবে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেননি। এর মধ্যে ‘লাক বাইচান্স’, ‘দাবাং’, ‘পাতিয়ালা হাউস’, ‘ককটেল’, ‘ওয়েলকাম ব্যাক’–এর মতো সিনেমা রয়েছে। এর মধ্যে শুধু ‘লাক বাইচান্স’–এ অভিনয়ের জন্য সেরা সহযোগী অভিনেত্রী হিসেবে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হন।

সর্বশেষ বিশ্বখ্যাত নির্মাতা ক্রিস্টোফার নোলানেন সিনেমা ‘টেনেট’-এ অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন ডিম্পল। তবে ‘টেনেট’ সিনেমায় ডিম্পল কাপাডিয়া কোন চরিত্রে অভিনয় করবেন, জানা যায়নি এখনো। এটুকু জানা গেছে, ডিম্পল কাপাডিয়ার সঙ্গে অভিনয় করবেন রবার্ট প্যাটিনসন, জন ডেভিড ওয়াশিংটন, এলিজাবেথ ডেবিকি, মাইকেল কেইন, কেনেথ ব্রানাঘ, অ্যারন টেইলর-জনসন ও ক্লিমেন্স পোয়েজিও।

রাজেশ খান্না শেষ দিনগুলোয় পাশে ছিলেন ডিম্পলরাজেশ খান্না শেষ দিনগুলোয় পাশে ছিলেন ডিম্পল
বাবার নায়িকা, ছেলেরও নায়িকা
ডিম্পল সেই অভিনেত্রী, যিনি বাবার সঙ্গে জুটি হয়েছেন, ছেলের সঙ্গেও জুটি হয়েছেন। বিনোদ খান্নার সঙ্গে ‘খুন কা কর্জ’ ও ‘ইনসাফ’ সিনেমাতে দেখা গিয়েছিল ডিম্পলকে। পরবর্তীকালে ‘দিল চাহতা হ্যায়’ সিনেমাতে অক্ষয় খান্নার বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। ধর্মেন্দ্রর সঙ্গে ‘শেহজাদে’, ‘বাতওয়ারা’সহ একাধিক সিনেমার পাশাপাশি সানি দেওলের সঙ্গে ‘নরসিমা’, ‘অর্জুন’, ‘আগ কা গোলা’র মতো চলচ্চিত্রে আবেগঘন দৃশ্যে দেখা গেছে তাঁদের।

ফিরেছিলেন রাজেশ খান্নার কাছে
রাজেশ খান্নার সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় বটে, তবে নিজেকে রাজেশ খান্নার থেকে আলাদা ভাবতে পারেননি ডিম্পল কাপাডিয়া। আর তাই আলাদা করে সংসার করা হয়নি ডিম্পলের। তবে ২০১০ সালে ফের দুজনের মধ্যে মিটমাট হয়ে যায়। রাজেশের শেষ সময়ে ডিম্পল তাঁর কাছেই ছিলেন। রাজেশের মৃত্যুর পর তাঁর হাত শক্ত করে ধরে ছিলেন ডিম্পল। এমনকি বারবার রাজেশের কপালে হাত বোলাতেও দেখা গেছিল ডিম্পলকে। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘রাজেশ আমার দুই সন্তানের বাবা। আমার জীবনে রাজেশের গুরুত্ব অপরিসীম। কোনো দিনই তাঁর গুরুত্ব কমবে না আমার জীবন থেকে।’





@২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । গ্রামপোস্ট২৪.কম, জিপি টোয়েন্টিফোর মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
Design BY MIM HOST